প্যালেস্তাইনের সমর্থনে পাকিস্তানে মিছিল, বো’মা বি’স্ফো’র’ণে মৃ’ত অন্তত ৭

ইজরায়েল এবং প্যালেস্টাইনের সংঘাত তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের রুপ নেওয়ার আগেই অবশেষে শান্তি চুক্তিতে রূপান্তরিত হল। উভয় প্রতিবেশী রাষ্ট্রর এখন একে অপরের বিরুদ্ধে শত্রুতার পথ থেকে সরে এসেছে। দীর্ঘ প্রায় ১১ দিনের সংঘাত এবং অসংখ্য মানুষের প্রাণহানি, সম্পত্তি ক্ষয়ের পর অবশেষে ইজরায়েল এবং প্যালেস্টাইনের মধ্যে শান্তিচুক্তি স্থাপিত হয়েছে।

তবে প্যালেস্টাইনের উপর ইজরায়েলের হামলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে বোমাবাজি হলো পাকিস্তানে। পাকিস্থানে প্যালেস্টাইনের সমর্থনে একটি প্রতিবাদ মিছিল বের করা হয়েছিল। সেই মিছিলে বোমাবাজি কাণ্ডে মিছিলে অংশগ্রহণকারী ৭ জন পাকিস্তানি নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এছাড়াও গুরুতরভাবে জখম হয়েছেন আরো ২০ জন ব্যক্তি। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে।

ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে দক্ষিণ-পশ্চিম পাকিস্তানের চমন প্রদেশে একটি মোটরবাইকে বোমা বাঁধা ছিল। সেই বোমা ফেটেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় এক ধর্মীয়-রাজনৈতিক দলের তরফে প্যালেস্তাইনের সমর্থনে মিছিল বের করেছিল। ঠিক সেই মুহূর্তেই আচমকা বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে পুরো এলাকা। বিস্ফোরণের পরে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় মিছিল।

চমন (Chaman) প্রদেশের ধর্মীয় সংগঠন নাজরিয়াতি গাজায় প্যালেস্টাইনের উপর ইজরায়েলের হামলা, প্যালেস্তিনীয়দের মৃত্যুর প্রতিবাদে এই মিছিল বের করেছিল। মিছিলের একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের জেরে আতঙ্কিত এলাকাবাসী। নাজরিয়াতি সংগঠনের প্রধান আবদুল কাদের লোনি জানালেন মিছিল চলাকালীন একটি মোটর বাইকে বাধা বিস্ফোরক ফেটেই এমন ঘটনা ঘটেছে। অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন তিনি।