সকলের জন্য নূন্যতম আয়ের প্রতিশ্রুতি, নির্বাচনী ইস্তেহারে মমতা!

একুশের বিধানসভা নির্বাচনী লড়াইয়ের পূর্বে মমতা ব্যানার্জির মাস্টার স্ট্রোক প্রকাশিত হলো গতকাল। গতকাল তৃণমূলের তরফ থেকে আসন্ন একুশের নির্বাচনী লড়াইয়ের ইশতেহার পেশ করা হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দশ দফা ওই ইশতেহারের অন্যতম প্রতিশ্রুতি হলো রাজ্যের প্রতিটি পরিবারের মানুষের কাছে মাসে অন্তত ৫০০ টাকা সরকারি ভাতা সরাসরি পৌঁছে দেওয়া!

দেশের অর্থনীতির চাকায় গতি আনতে অর্থনীতিবিদদের বহু পুরাতন পরামর্শ হলো সকলের জন্য ন্যূনতম আয়ের ব্যবস্থা করা। রাজ্যে তৃতীয় দফায় ক্ষমতায় এলে মমতা সরকার অর্থনীতিবিদদের সেই মূল্যবান পরামর্শ অনুযায়ীই ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। সেই আশ্বাসই দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ইশতেহার অনুযায়ী, রাজ্যের প্রতিটি পরিবার প্রতি মাসে ৫০০ টাকা করে ভাতা পাবেন।

তপশিলি জাতি এবং উপজাতিদের জন্য মাসে ১০০০ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। প্রত্যেক পরিবারের গৃহকর্ত্রীর নামে সরকারের তরফ থেকে বরাদ্দ টাকা প্রদান করা হবে। এদিন তিনি জানিয়েছেন, রাজ্যের মহিলাদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করার উদ্দেশ্যেই মাসে এই ব্যবস্থা আনার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এতে প্রতিমাসে মহিলাদের হাতেও কিছু টাকা আসবে।

প্রসঙ্গত, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই প্রতিশ্রুতিকেই হাতিয়ার করছে তৃণমূল। রাজ্য শাসকদলের দাবি, মমতা সরকার এ পর্যন্ত যা কিছু প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তিনি তা বরাবর রক্ষাও করেছেন। এই প্রতিশ্রুতিই মমতা সরকারের হয়ে ভোটের প্রচারে তুরুপের তাস হয়ে দাঁড়াবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। তবে রাজ্যের প্রায় দুই কোটি পরিবারকে আর্থিক সহায়তা করার মত টাকা সরকার কিভাবে জোগাড় করবে তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। তবে সেই প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে গিয়েছে রাজ্য।