নেপালে রাম মন্দির নির্মাণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী ওলির

যেনতেন প্রকারেণ ভারত বিরোধীতা করাই এখন যেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলির মূল লক্ষ্য হয়ে উঠেছে। সম্প্রতি উত্তর প্রদেশের অযোধ্যায় রাম মন্দির প্রতিষ্ঠার প্রতিক্রিয়ায় তিনি দাবি করেছিলেন রামের আসল জন্মভূমি রয়েছে নেপালে। এবার নিজের দাবিকে গুরুত্ব দিতে নেপালের চিতওয়ানের মাডি এলাকায় রাম মন্দির প্রতিষঠান নির্দেশ দিলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি।

শনিবার, অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদেরকে নিয়ে নেপালের চিতওয়ানের মাডি এলাকায় একটি জরুরি বৈঠকে বসেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি। সেখানেই মাডির নাম বদলে অযোধ্যা পুরি রাখার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। শুধু তাই নয় ওই এলাকায় একটি রাম মন্দির গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজনীয় প্ল্যানের নকশা বানানোর নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

তবে অলির এই পদক্ষেপের বিরোধিতা করছেন নেপালের পুরোহিত সংগঠনের একাংশ। নেপালের এক পুরোহিত আর্চায্য দুর্গাপ্রসাদ গৌতম নেপালের প্রধান মন্ত্রীর এই পদক্ষেপের কড়া নিন্দা করে বলেছেন, ভারতের অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ হিন্দু সমাজের কাছে গৌরবের বিষয়। তবে নেপালের প্রধানমন্ত্রী শুধুমাত্র নিজের স্বার্থ সিদ্ধির উদ্দেশ্যে ভগবান শ্রী রামকে ব্যবহার করতে চাইছেন। সারা বিশ্ব যেখানে অযোধ্যায় রাম মন্দির প্রতিষ্ঠার সমর্থনে রয়েছে, সেখানে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর দাবি ভিত্তিহীন।

কূটনীতিবিদদের মতে ভারত বিরোধিতার জেরেই এবার ধর্মকে হাতিয়ার করতে চাইছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই, বিভিন্ন অনৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের ফলে নেপালের জনগণের একাংশ অলি বিরোধিতা করতে শুরু করেছেন। ধর্মের দোহাই দিয়ে এবার তাদের সমর্থন পেতে চাইছেন অলি। এতে অবশ্য নেপালের পুরোহিত সংগঠনের একাংশেরই সায় নেই। রাম মন্দির প্রসঙ্গে নেপালে তাই জোর তরজা শুরু হয়েছে।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন