রাতে ফোন চার্জ করা যাবে না ট্রেনে, নয়া নিয়ম আনছে ভারতীয় রেল, জেনে নিন কারণ

ট্রেনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নতুন কোনো ঘটনা নয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কার্যত শর্ট সার্কিট থেকেই ট্রেনের কামরায় মারাত্মক আগুন লেগে যায়। সম্প্রতি দিল্লি থেকে দেরাদুনগামী শতাব্দী এক্সপ্রেসের সি ফোর কামরাটিও ভয়ঙ্কর আগুনের কবলে চলে যায়। রেল কর্তৃপক্ষের দাবি, শর্ট সার্কিটজনিত কারণেই এমন ভয়ঙ্কর অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ট্রেনের কামরাটি সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হলেও অবশ্য যাত্রীদের নিরাপদে ট্রেন থেকে নামিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

তবে এই ঘটনার পর সতর্ক হয়েছে রেলওয়ে দপ্তর। ট্রেনে যাতে এই ধরনের দুর্ঘটনা আর না ঘটে সেইজন্য কড়া নিয়ম আনতে চলেছে ভারতীয় রেল বিভাগ। যাত্রীদের উপরেই প্রধানত চাপানো হবে এই নিয়ম নিষেধাজ্ঞা। ট্রেনে যাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয় সেই উদ্দেশ্যে ট্রেনের বাথরুমে ধূমপান কিংবা অন্য কোনো দাহ্য বস্তু বহনের ক্ষেত্রেও যাত্রীদের উপর কড়া নজর রাখবে রেল দপ্তর।

এছাড়াও ট্রেনের কামরায় চার্জিং পয়েন্ট ব্যবহারের ক্ষেত্রেও নতুন ব্যবস্থা আনা হয়েছে। যে ব্যবস্থার দরুন এবার থেকে আর রাতে চার্জিং পয়েন্ট ব্যবহার করতে পারবেন না যাত্রীরা। রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত ট্রেনের প্রতিটি কামরার চার্জিং প্লাগ পয়েন্টের বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ থাকবে। এতে যাত্রী নিরাপত্তা আরও মজবুত হবে বলে মনে করছে রেল কর্তৃপক্ষ।

অনেক সময় দেখা গিয়েছে রাতের ট্রেনের যাত্রীরা ফোন চার্জে রেখেই ঘুমিয়ে পড়ছেন। এতে শর্ট সার্কিট থেকে কামরায় ভয়াবহ আগুন লেগে যাওয়ার সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে। কারণ দিনের বেলা শর্ট সার্কিট হলে যাত্রীদের সতর্কতার দরুন বড়োসড়ো বিপদ এড়ানো সম্ভব হয়। তবে রাতের দিকে এই ঘটনা ঘটলে বিপদ এড়ানো মুশকিল হয়ে পড়ে। কারণ যাত্রীরা প্রত্যেকেই প্রায় ঘুমিয়ে থাকেন। তাই বিপদ বুঝে ওঠার আগেই সারা কামরা আগুনের গ্রাসে চলে যায়।