চরম আর্থিক সংকটের পাকিস্তান, ঋণ পাওয়ার জন্য দেশের সবথেকে বড়ো পার্ক বন্ধক রাখতে চলেছে ইমরান খান

করোনাকালে বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশই অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়েছে। করোনা ভয় অতিক্রম করে বিশ্ব আবার ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে। বিশেষত বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই গণহারে টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হয়ে গিয়েছে। তাই শীঘ্রই এই অর্থনৈতিক দুরবস্থা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে ভারতের প্রতিবেশী রাষ্ট্র পাকিস্তানের চিত্রটা একটু অন্যরকম। সাম্প্রতিককালের সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট থেকে জানা গেল, সেদেশে বেশ অর্থাভাব দেখা দিয়েছে।

চরম অর্থকষ্টে পড়েছে ইমরান খানের প্রশাসন। এই অর্থ কষ্ট লাঘব করতে ইসলামাবাদের বৃহত্তম পার্ক F-9 পার্কটিকে ৫০০ কোটি টাকার বিনিময়ে নিলামে তোলার পরিকল্পনা করছে পাক প্রশাসন। পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, আগামী মঙ্গলবার ফেডারেল মন্ত্রিসভার পরবর্তী ভার্চুয়াল বৈঠকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী F-9 পার্কটি বন্ধক রাখার প্রস্তাব রাখতে চলেছেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ইসলামাবাদের এই বৃহত্তম পার্কটি মাদার-ই-মিল্লাত ফাতেমা জিন্নাহর নামে নামকরণ করা হয়েছিল। ৭৫৯ একর জমি নিয়ে গঠিত এই পার্ক নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। এজেন্ডা আইটেমের ছয় নম্বর আইটেম হিসাবে তালিকাভুক্ত হয়েছে এই প্রস্তাব। পাকিস্তানের মূলধন উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বা ক্যাপিটল ডেভলপমেন্ট অথরিটির তরফ থেকে ইতিমধ্যেই নো অবজেকশন সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়েছে।

পাকিস্তানের সম্পত্তি নিলামে তোলার পরিকল্পনা ইতিপূর্বেও নিয়েছে ইমরান খানের প্রশাসন। অর্থাভাব মেটাতে পাকিস্তানের বিভিন্ন বিল্ডিং, প্রতিষ্ঠান এবং রাস্তাঘাট জাতীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে নিলামে তোলা হয়েছে। সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাশাহীর মতো রাষ্ট্রগুলির সঙ্গে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পরেই পাকিস্তানের সমস্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই এখন দেশের সম্পদ নিলামে তুলে অর্থাভাব মেটাতে চাইছে পাক প্রশাসন।