গালে সজোরে থাপ্পড়, FATF-র ধূসর তালিকা থেকে বের হতে পারলো না পাকিস্তান

ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স তথা FATF-এর ধূসর তালিকা থেকে বেরতে পারলো না জঙ্গী কার্যকলাপে মদত পোষণকারী রাষ্ট্র পাকিস্তান। বহুবার সতর্ক করে দেওয়া সত্বেও জঙ্গী কার্যকলাপ রুখতে ব্যর্থ পাকিস্তান, এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক সংস্থা FATF পাকিস্তানকে এখনই ধূসর তালিকা থেকে বের হতে দিতে নারাজ। ফলে আন্তর্জাতিক মহলে আবারও চাপের মুখে ইমরান খানের প্রশাসন।

২০১৮ সালের জুন মাসে FATF এর তরফ থেকে পাকিস্তানকে ধূসর তালিকার অন্তর্ভুক্ত করা হয়। জঙ্গী কার্যকলাপে মদত দেওয়ার অভিযোগে পাকিস্তানকে “ব্ল্যাক লিস্টেড” করার আগে সতর্কবার্তা হিসেবে ধূসর তালিকার অন্তর্ভুক্ত করা হয়। সেই সময় আন্তর্জাতিক সংগঠনের তরফ থেকে পাকিস্তানকে নির্দেশ দেওয়া হয় সন্ত্রাসে আর্থিক মদত দেওয়া ও আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ থেকে মুক্ত হতে গেলে সংস্থার তরফ থেকে নির্ধারিত অ্যাকশন প্ল্যানগুলি মেনে চলতে হবে।

জঙ্গী সংগঠনের উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য ২০১৯ সাল পর্যন্ত সময় পেয়েছিল পাকিস্তান। পরে অবশ্য করোনার জন্য সময় কিছুটা বাড়িয়ে নেওয়া হয়। এই সময়কালের মধ্যেও জঙ্গি সংগঠনগুলিকে পুরোপুরি দমিয়ে ফেলতে সক্ষম হয়নি ইমরান খানের সরকার। গতবছরের নভেম্বর মাসে অবশ্য শীর্ষ পাক গোয়েন্দা সংস্থা FIA এর তরফ থেকে মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গিদের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার FATF-এর তরফ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানানো হয়, আন্তর্জাতিক সংস্থার তরফ থেকে নির্ধারিত ২৭টি অ্যাকশন প্ল্যানের মধ্য থেকে তিনটি এখনও মেনে চলতে পারেনি পাকিস্তান।তাই আপাতত পাকিস্তানকে ধূসর তালিকার বাইরে বের করা সম্ভব হচ্ছে না। ওই নির্দেশিকাতেই চলতি বছরের জুন মাস পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়েছে। এর মধ্যে যদি পাকিস্তান আশানুরূপ পর্যায়ে পৌঁছতে পারে, তাহলে তাহলে জঙ্গিমদত পোষণকারী রাষ্ট্রটির অবস্থান ফের খতিয়ে দেখা হবে বলে জানানো হয়েছে।