“পদত্যাগ” করার হুমকি ইমরানকে, পাকিস্তানে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে “জেহাদ” ঘোষণা বিরোধীদের

সময় যতই এগোচ্ছে, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মসনদ তত নড়বড়ে হয়ে যাচ্ছে। ইমরান খানের বিরুদ্ধে ক্রমশই সোচ্চার হচ্ছে সে দেশের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। তার প্রশাসনের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ দায়ের করেছেন তারা। এতদিন তারা যে বিক্ষোভ দেখিয়ে আসছিলেন, এবার তা রীতিমতো “জিহাদ” এর পর্যায়ে উত্তীর্ণ হলো! পাক প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে জোট বদ্ধ হয়েছে ১১টা বিরোধী দল।

এই বিরোধী জোটের প্রধান মৌলানা ফজলুর রহমান সম্প্রতি ইমরান খানের বিরুদ্ধে তাদের লড়াইকে “জিহাদ” আখ্যা দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, খাইবার পাখতুনখাওয়ার মা‌লাকান্দে একটি জনসভায় অংশগ্রহণ করে পাকিস্তানের আমজনতাকে ইমরান খানের বিরুদ্ধে তাদের লড়াইয়ে সামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, ইমরান খানের প্রশাসন যতদিন গরীব মানুষের উপর অত্যাচার চালিয়ে যাবে, ততদিন এই জিহাদ তারা জারি রাখবেন।

শুধু তাই নয়, অবিলম্বে ইমরান খানের পদত্যাগের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন বিরোধী জোটের সদস্যরা। তাদের দাবি, ইমরান খানকে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে অপসারণ করার জন্য তারা সব ধরনের আত্মত্যাগ করতে পারেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ইমরান খানের বিরোধী দলগুলি তাকে কার্যত পাকসেনার “চাকর” হিসেবেই মনে করেন। ফজলুল রহমান এদিন আবারও দাবি করলেন, পাকিস্তানে গণতন্ত্র বিনষ্ট হয়েছে।

পাক প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে প্রতারিত করে চলেছেন, সংবিধানকে অসম্মান করছেন। তিনি কার্যত পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর হাতের পুতুল। নিজের বক্তব্যে আবারও একই দাবি করলেন ফজলুল রহমান। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছরের ১৬ই অক্টোবর থেকেই ইমরান খানের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছেন বিরোধীরা। আগামী ৩১শে জানুয়ারির মধ্যেই ইমরান খানকে প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে! এমনটাই দাবি তুলছেন বিরোধীরা।