ফের চড়া দামে কিনতে হতে পারে পেঁয়াজ, কেন্দ্রের নির্দেশে রপ্তানি বন্ধ

আবার সেই আগের রূপ দেখা যাচ্ছে বলেই মনে করছে সরকার, আর সেটা হল দাম বৃদ্ধির অশনিসংকেত। আর সেই প্রভাব যেনো দেশের মানুষের ওপরে তেমন একটা প্রভাব না পরে সেই কারণেই এবার পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করল সরকার। আসলে গত কয়েকমাস আগেই এপ্রিল থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত এই পেঁয়াজের দাম ৩০% এর মতো বৃদ্ধি পেয়েছিল তার ফলেই দেখা যাচ্ছিল পেঁয়াজের আগুনমূল্য। তখন অবশ্য রপ্তানি চালু থাকলেও এবার একেবারে বন্ধ করে দিল সরকার।

কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে ডিরেক্টর জেনারেল অফ ফরেন ট্রেড জানিয়েছেন , আসলে গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে এই পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল, কারণ ডিসেম্বর মাসেই পেঁয়াজের দাম ছিল ৮০ টাকার মতো। তবে সেটা ২০২০ তে কম হয়েছে আর তারপরেই রপ্তানি চালু করা হয়েছিল। তবে এবার ফের সেই রপ্তানি বন্ধ করে দিল সরকার।

এদিকে সমীক্ষায় দেখা গেছে, আসলে ভারত ২০১৯-২০ সালের মধ্যে ৩২৮ কোটি টাকার পেঁয়াজ রপ্তানি করেছে আর ১১২ কোটি টাকার শুকনো পেঁয়াজ আমদানি করেছে। আর পেঁয়াজের ১৫৭.৭% পেঁয়াজ বাংলাদেশেই রপ্তানি করা হয়েছে। ভারতের এই পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে অনেকটাই সংবেদনশীল ভারতবাসী। আসলে গত আগস্ট মাসে খুচরো মুদ্রা স্ফিতীর হার বৃদ্ধি পেয়ে হয় ৬.৬৯%, এদিকে আবার খাদ্য দ্রব্যের মুদ্রা স্ফিতীর হার কমেছে ৯.০৫%, কিন্তু তাও খাদ্য ও পানীয়ের মূল্যবৃদ্ধির হার বৃদ্ধি পেয়েছে ৮.৩%।