যে কোনও পুজোর অন্যতম উপাদান বেল পাতা, জেনে নিন তার গুরুত্ব

প্রত্যেক হিন্দু ধর্মালম্বীদের কাছে বেলগাছ অত্যন্ত পবিত্র বলে মনে করা হয়। যেকোনো পুজো অসম্পূর্ণ থাকে বেলপাতা ছাড়া। বিশেষত এই পাতা অর্পণ করা হয় দেবাদিদেব মহাদেব কে।দেবাদিদেব মহাদেব ছাড়াও যে কোন ধর্মীয় রীতিনীতি পালন করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হলো বেলপাতা। বিভিন্ন দেবতাকে অর্পণ করার জন্য বিভিন্ন উপকরণ থাকে। কিন্তু যে কোনো পুজোতে নৈবেদ্য সাজাতে গেলে বেলপাতা দরকার।

পুরাণ অনুযায়ী, সাগর মন্থন সময় যে বিষ উঠে এসেছিল, তখন মহাদেব বিশ্বব্রহ্মাণ্ড রক্ষা করার জন্য সেই বিষ গলায় ধারণ করেন। বিষের প্রভাবে শিবের শরীর গরম হতে শুরু করে, এবং তখন অন্যান্য দেবতারা তার মাথায় গঙ্গা জল ঢালতে শুরু করেন। শুধুমাত্র জল নয় মহাদেব কে ঠান্ডা রাখার জন্য অর্পণ করা হয় বেলপাতা। ঠিক এর পর থেকেই নীলকন্ঠ কে আরাধনা করার সময় আমরা অর্পণ করে থাকি বেলপাতা।

অভিন্ন এবং নিখুঁত তিনটি বেলপাতা অর্পণ করা হয় মহাদেব কে।কারণ এই তিনটি বেলপাতা একত্রে ঈশ্বরের তিনটি চোখ হিসেবেও মানা হয়। বেল ফলের আরেক নাম শ্রীফল। মহাদেবের পুজোর জন্য এই শ্রীফল অন্যতম উপাদান। বেলপাতা তিনটি একত্রে ব্রহ্মা-বিষ্ণু-মহেশ্বর বলে মনে করা হয়। আর তিনটি বেলপাতা একত্রে থাকলে তবেই তা পুজোর উপকরণ এর জন্য যোগ্য বলে মনে করা হয়। এছাড়া বেল পাতার তিনটি কে একত্রে পুজো স্তত এবং জ্ঞান হিসেবে গণ্য করা হয়। তাই কখনো ছিড়া অথবা একটি বা দুটি বেলপাতা অর্পণ করা যায় না। যখনই পুজো করতে বসবেন লক্ষ্য রাখবেন যেন বেল পাতার তিনটি নিখুঁত থাকে।