ফের বাঘের শিকার, সুন্দরবনে কাঁকড়া ধরতে গিয়ে মহিলাকে টেনে নিয়ে গেলো রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার

সুন্দরবনের ফের বাঘের আক্রমণে নিখোঁজ হলেন এক মহিলা মৎস্যজীবী। গতকাল সুন্দরবনের কাঁকসা জঙ্গলের গাড়োল নদীতে কাঁকড়া ধরতে গিয়েই এই বিপত্তি ঘটে। নিখোঁজ ওই মহিলার নাম রিনা মন্ডল। তার বয়স ৪৭ বছর। প্রসঙ্গত গত চার বছর পূর্বে তার স্বামী পেশায় মৎস্যজীবী ভবসিন্ধু মন্ডলকেও ঠিক একই ভাবে তুলে নিয়ে যায় বাঘে। এরপর তার আর কোনো খোঁজই পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় সূত্রে খবর, বুধবার সকালে গোসাবা ব্লকের লাহিড়িপুর এলাকার বিধান কলোনির বাসিন্দা রিনা মন্ডল তার দেওর মহন্ত মন্ডলের সঙ্গে নদীতে কাঁকড়া ধরতে যান। তারা যখন কাঁকড়া ধরছিলেন তখনই আচমকা ঝোপের আড়াল থেকে একটি বাঘ বেরিয়ে এসে তাকে আক্রমণ করে এবং নিমেষেই তাকে তুলে নিয়ে গভীর অরণ্যে পালিয়ে যায়।

ঘটনার আকস্মিকতায় প্রথমটা হতভম্ব হয়ে গিয়েছিলেন রিনা দেবীর দেওর মহন্ত মন্ডল। এরপর তিনি কোনমতে বাড়ি পৌঁছে বিষয়টি সকলকে জানান। এমন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এলাকায় স্বভাবতই শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এ প্রসঙ্গে বন দপ্তরের অধিকর্তারাও শোক প্রকাশ করেছেন। তবে ওই এলাকায় মৎস্যজীবীদের মাছ ধরার ছাড়পত্র ছিল কিনা তাও খতিয়ে দেখছেন তারা।

বন দপ্তরের অধিকর্তাদের দাবি, মৎস্যজীবীরা অনেক সময়েই নিষিদ্ধ জায়গা গুলিতে কাঁকড়া ধরতে চলে যাচ্ছেন। এরফলেই তারা বাঘের হামলার মুখে পড়েন। এ বিষয়ে তাদের সতর্ক করেও লাভ হচ্ছে না। পেটের দায়ে দরিদ্র মৎস্যজীবীরা এইভাবে নিষিদ্ধ এলাকায় মাছ ধরতে গিয়ে প্রায়শই বিপদে পড়ছেন। এক্ষেত্রেও তেমনটা হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।