OMG, অপারেশন সাকসেসফুল হলেও তোয়ালে রয়ে গেলো রোগীর পেটে, চরম গাফিলতি চিকিৎসকের

প্রতীকী ছবি

চিকিৎসকের চূড়ান্ত গাফিলতির মাশুল গুনলেন এক প্রসূতি। সিজারিয়ান ডেলিভারির পরেও টানা ৭৭ দিন ধরে পেটে তোয়ালে নিয়েই ঘুরতে হয়েছে তাকে। তার সঙ্গে এতদিন ধরে টানা পেটের যন্ত্রনায় ভুগছিলেন ওই মহিলা। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে। অভিযোগ কানপুরের কল্যাণপুর এলাকার একটি নার্সিংহোমে সিজারিয়ান ডেলিভারি হয়েছিলো ওই প্রসূতির। কিন্তু চিকিৎসকের গাফিলতিতে অপারেশন চলাকালীন একটি তোয়ালে তার পেটের ভিতরেই থেকে যায়।

এদিকে অপারেশন হয়ে যাওয়ার দশ দিন পরেও পেটের ব্যথা থেকে মুক্তি পাননি ওই মহিলা। পেটে ব্যথা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাওয়াতে শেষমেষ ওই হাসপাতালেই নিজের সমস্যার কথা জানিয়েছিলেন তিনি। তবে হাসপাতালের তরফ থেকে তাঁকে আশ্বস্ত করে জানানো হয়, তার এই অবস্থায় এরকম পেটে ব্যথা হওয়া একেবারেই স্বাভাবিক। তবে পরবর্তী ক্ষেত্রে স্থানীয় একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষা করিয়ে তিনি জানতে পারেন তার পেটের ভেতরে রক্ত জমাট বেঁধে আছে।

উল্লেখ্য, ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ওই মহিলার পেটের ভেতরে যে জমাট বাঁধা রক্ত পাওয়া গিয়েছিল তা আসলে অপারেশন চলাকালীন তার পেটের ভিতর থেকে যাওয়া তোয়ালে বলেই পরে জানা গিয়েছিল। তোয়ালে বের করতে গিয়ে পুনরায় তার অস্ত্রোপচার করানো হয়। শুধু চিকিৎসকের গাফিলতির দরুন এতটা কষ্ট এবং হয়রানি সহ্য করতে হয়েছে তাকে। এর পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ প্রশাসনের পাশাপাশি মুখ্য মন্ত্রীর দপ্তরে এবং জেলা শাসকের কাছেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং মহিলা চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই মহিলা রোগী।