OMG: অদ্ভুত জায়গা, এখানে গেলে শুধুমাত্র মেয়েদেরই ভূতে ধরে!

এখানে আসলেই কেন মেয়েদের ওপর প্রভাব পড়ে? কেন তাদের ব্যবহারের পরিবর্তন ঘটে? আমরা সবাই ভগবান সৃষ্ট জীব আর ভগবানের দেখানো পথেই আমরা সর্বদা চলি। কিন্তু এখানে কি এমন কারণ যার ফলে মেয়েরাই একমাত্র অস্বাভাবিক আচরণ করতে থাকে? এখানে দিল্লির বাহাদুর শাহ রোডের ফিরোজ শাহ কোটলা আর কথা বলা হচ্ছে। এই দুর্গে মেয়েরা প্রবেশ করলেই অঘটন ঘটে? এই নিয়ে অনেকের অনেক মন্তব্য রয়েছে কিন্তু প্রচলিত আছে পৃথিবীতে যেমন ঈশ্বর আছে তেমন আছে জিন। ভালো-খারাপ দুই ধরনের জিন আছে।

এক জিন নাকি ঈশ্বরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে তার পরে ঈশ্বর ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে অভিশাপ দেয়, সেই থেকেই জিন ও তার বংশধরেরা নাকি এই ফিরোজ শাহ কোটলা মধ্যে ঘুরে বেড়ায়। জানা যায় এই ফিরোজ শাহ কোটলা যে সুলতান নির্মাণ করিয়েছিলেন তিনি নাকি প্রথম থেকেই নারীদের উপর অত্যাচার করে আসছিল, শুধু তাদের ভোগ করা নয় তাদের কষ্ট দিয়ে ডুবিয়ে মারা ছিল তার আনন্দের কারণ।

যখন দুর্গের বেহাল অবস্থা তখনও সুলতানের নারীর প্রতি অত্যাচারের রেষ বিন্দুমাত্র কমেনি। কিন্তু এখন সুলতান বেঁচে নেই তার পরিবর্তে ইবলিশ জিন দখল করেছে এই সৌধ। সেখানে যদি কোন মেয়ের উপস্থিতি পায় তাহলেই তারা ভর করে তাদের উপর নয়তো তাড়িয়ে বেড়ায় সারা জীবন।