OMG: শ্ম’শা’ন থেকে মৃ’ত’দে’হে’র কাপড় চু’রি করে বি’ক্রি, ৭ দু’ষ্কৃ’তী’র জে’ল হে’ফা’জ’ত

সারাদেশ করোনার প্রকোপে ধুঁকছে। প্রতি ক্ষুদ্র ভাইরাসের বিরুদ্ধে বেঁচে থাকার লড়াই সাধারণ মানুষের। এই সময়ে সংক্রমণ এড়ানো একটি অতি বড় চ্যালেঞ্জ। সংক্রমণের হার এবং মৃত্যুর হার দুটোই ক্রমাগত বেড়ে চলেছে। তবে এরই মধ্যে একজন মানুষ আছেন যারা মৃতদেহ নিয়েও ব্যবসা করছেন! করোনায় আক্রান্ত মৃত রোগীর ব্যবহৃত জামাকাপড় সংগ্রহ করে দোকানে দোকানে বিক্রি করছেন তারা!

এমনই ভয়াবহ কান্ড চলছে উত্তরপ্রদেশের বাঘপত গ্রামে। করোনাই আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর পর তাদের ব্যবহৃত জামাকাপড়, বিছানার চাদর সংগ্রহ করে ধুয়ে গোয়ালিয়রের কোম্পানির ট্যাগ লাগিয়ে দোকানে দোকানে বিক্রি করে দিতো দুষ্কৃতীরা। পুলিশ খবর পেয়ে‌ হাতে-নাতে সাতজন দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করেছে।

ধৃতদের থেকে ৫২০টি বিছানার চাদর, ১২৭টি কুর্তা, ৫২টি সাদা শাড়িসহ আরো অন্যান্য জামাকাপড় উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ অভিযুক্তদের জেরা করে জানতে পারে বিগত দশ বছর ধরেই এই ব্যবসা চালিয়ে আসছে তারা। যা শুনে স্তম্ভিত প্রশাসন। বিশেষত করোনাকালে এই ব্যবসার থেকে সংক্রমণ আরো ছড়িয়ে পড়ার সম্পূর্ণ সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে।

পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে দৈনিক ৩০০ টাকা মজুরি হিসেবেও দুষ্কৃতীরা দোকানে দোকানে ঘুরে এই কাপড় বিক্রি করেছে। সাতজন দুষ্কৃতীদের মধ্যে একই পরিবারের তিনজন ব্যক্তিও রয়েছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে চুরি এবং অতিমারি আইনের আওতায় অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ।