এবার ঘরে বসেই করুন পুজো পরিক্রমা, দুর্গাপুজোর মুহূর্তে থাকছে বিশেষ সুবিধা

আর কিছুদিনের মধ্যেই আপামর বঙ্গবাসী তাদের সবথেকে বড় পার্বণ দুর্গাপূজা উৎসব নিয়ে মেতে উঠবে। পূজামণ্ডপগুলিতে এখন থেকেই তার প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। তবে অন্যান্য বারের তুলনায় এবারের উৎসবের প্রস্তুতি কিছুটা নিষ্প্রভ। কারণ, করোনা কাঁটা। তবে আতঙ্কের মধ্যেও উৎসবের মাধ্যমে খুশির রসদ খুঁজে নিতে পিছপা হয় না বাঙালি। তাই এবার, দুর্গা প্রতিমা কেবল মন্ডপের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকছে না। বরং ভার্চুয়াল মাধ্যমে এবার মা দুর্গা পৌঁছে যাবেন প্রতিটি ভক্তের বাড়িতে।

করোনা মহামারীর মধ্যে নির্বিঘ্নে দুর্গোৎসব পালন করতে এবার এমনই পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে মেদিনীপুর পৌরসভা। মায়ের আরাধনার প্রতিটি মুহূর্ত ইউটিউবের মাধ্যমে সকলের কাছে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে পুজো কমিটি গুলি। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে ইতিমধ্যেই মেদিনীপুর পৌরসভার তরফ থেকে স্থানীয় কেবল অপারেটরদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে বলে জানা গেল। পুজোর দিনগুলিতে যাতে মন্ডপের ভীড় এড়ানো যায়, সেজন্যই এই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে পুরসভা।

মেদিনীপুর পুরসভার প্রশাসক তথা সদর মহকুমাশাসক দীননারায়ণ ঘোষের থেকে জানা গেল, দূর্গা পূজার সঙ্গে বাঙালির আবেগ এবং ভক্তি জড়িয়ে আছে। তবে মহামারীর কারণে পূজা মণ্ডপে ভক্তদের ভীড় হওয়াটাও বাঞ্ছনীয় নয়। সবদিক বিবেচনা করেই এবার অনলাইন পুজো পরিক্রমা এবং মায়ের আরাধনার লাইভ টেলিকাস্টের ব্যবস্থা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, পুজো কমিটি এবং কেবল অপারেটরদের সাথে যোগাযোগ করে এসংক্রান্ত প্রস্তুতিও শুরু করা হয়েছে।

মেদিনীপুরের মহকুমা শাসক নিজে পুজো কমিটি গুলির সাথে বৈঠকে বসে এই প্রস্তাব দিয়েছেন বলে জানা গেল। উল্লেখ্য, মেদিনীপুর জেলাতে বেশ কয়েকটি থিম নির্ভর বিগ বাজেটের পুজো হয়। যেগুলি দেখার জন্য গ্রাম-গঞ্জ থেকে মানুষ পূজামণ্ডপগুলিতে ভিড় জমান। এই সমস্ত বিখ্যাত পূজা গুলির ছবি এবং ভিডিও এবার এবার ঘরে বসেই দেখতে পারবেন সাধারন মানুষ। ফলে মন্দিরের ভিড় অনেকটাই নিয়ন্ত্রন করা যাবে বলে মনে করছেন মেদিনীপুরের প্রশাসনিক কর্মকর্তারা।