কুখ্যাত অপরাধী ছোটা রাজনের ২ বছরের জেল, তোলাবাজির অভিযোগে মুম্বই আদালত দিলো শাস্তি

আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন ছোটা রাজন, আজ সোমবার ছোটা রাজন সহ আরও চারজনকে মুম্বাই আদালত তোলাবাজি এবং ব্যবসায়ীকে খুনের হুমকির অভিযোগে দু বছরের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিল। গত কয়েক বছর আগেই পাভেলের এক নির্মাতা ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ২৬ কোটি তোলা চেয়েছিল ছোটা রাজন।কিন্তু সেই ব্যাবসায়ী দিতে রাজি না হওয়ায় তাকে খুনের হুমকি দিয়েছিল সে ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা। আসলে আদালতের সূত্রে আরো জানা যায় ২০১৫ সালে, ওয়াজেকর নামে এক ব্যক্তি কয় একর জমি কিনেছিলেন, আর সেখানেই এজেন্ট ছিলেন পরমানন্দ ঠাক্কর।

তিনি সেই ওয়াজকরের কাছ থেকে ২ কোটি টাকা কমিশন পেয়েছিল ঠিকই কিন্তু তার এতে মন ভরে নি।এই কারণে তিনি আরো টাকা দাবি করেন ওয়াজেকরের কাছে।কিন্তু সে দিতে রাজি না হওয়ায় শেষপর্যন্ত পরমানন্দ শরণাপন্ন হয় আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন ছোটা রাজনের কাছে। এরপরেই রাজধানীর লোক গিয়ে ওয়াজকরের কাছে দুই কোটির বদলে ২৬ কোটি টাকা তোলা চায়। কিন্তু তখনও তিনি দিতে রাজি না হওয়ায় তাকে খুনের হুমকি পর্যন্ত দেয় তারা। এখন অবশ্য দিল্লির তিহার জেলের একটি ছেলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আসামি এই ছোটা রাজন।

তার বিরুদ্ধে আগের থেকে খুন খুনের হুমকি খুনের চেষ্টা তোলাবাজি এই সমস্ত কিছুর অভিযোগ রয়েছে। ২০১৫ সালে ইন্দোনেশিয়ায় সরকার এই ছোটা রাজন কে ভারতের হাতে তুলে দেয়, আর তারপর থেকেই সে দিল্লির তিহার জেলে বন্দী। আসলেই ছোটা রাজন এর ভালো নাম রাজেন্দ্র এস নিখলেজ, সে প্রথম থেকে দাউদ ইব্রাহিমের সাথে গাঁটছড়া বাঁধেন হাজার ১৯৮৪ সালে, এরপর ১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ের ধারাবাহিক বিস্ফোরণে দুজন দুপথে হাটে। এরপর থেকেই আরব সাগরের পারে নিজের বিশাল সাম্রাজ্য গড়ে তোলে সে।