স্বস্তির খবর, তেলের পর দা’ম ক’ম’লো ডালের, জেনে নিন

গত বছরে করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকে দেশজুড়ে অর্থনৈতিক সংকট শুরু হয়। বহু মানুষ তাদের কাজ হারায়, চারিদিকে একপ্রকার হাহাকারের মত সৃষ্টি হয়ে গেছে। একদিকে যেমন বাড়েছে খাদ্য দ্রব্যের দাম তেমনি, অন্যদিকে বাড়েছে নানান নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম। পেট্রোল-ডিজেলের দাম যেন ঊর্ধ্বমুখী, দিনের পর দিন আরো দাম বেড়ে চলেছে। যার ফলে যানবাহনের ভাড়া দিতে নাজেহাল হতে হচ্ছে মধ্যবিত্তদের।

আর অন্যদিকে রয়েছে খাদ্যদ্রব্যের চড়া দাম, যার ফলে মধ্যবিত্তের কপালে হাত। এরকম সময়ে কিছুটা স্বস্তির খবর পাওয়া গেল। দাম কমছে ডালের। গত বছরের শেষের দিক থেকে রান্নার তেলের দাম যেন বিশাল পরিমাণে বেড়ে গিয়েছিল, তবে বর্তমানে তেলের দাম কিছুটা হলেও কমেছে। তেলের পর ডালের দাম কমল, যা, মধ্যবিত্তদের কাছে একটি খুশির খবর। সব ডালের মধ্যে সবথেকে ছোলার ডালে দেখা গেছে দামের পতন।

এপ্রিল মাসের দিকে ডালের দাম হয়েছিল সর্বশ্রেষ্ঠ তবে বর্তমানে, কিছুটা হলেও স্বস্তি পাওয়া গেল ডালের দাম কমাতে। করোনার মতো মহামারীর সময়, ডালের দাম প্রচুর পরিমাণে বেড়ে যাওয়ায় চাহিদা কমে গিয়েছিল এবং যার ফলে ডালের দাম অবশেষে কমলো। বর্তমানে প্রতি কুইন্টাল ছোলার ডালের দাম এসে দাঁড়িয়েছে ৫,১০০টাকাতে।

মধ্যপ্রদেশ এবং রাজস্থানের ডালের দাম ৪,৬০০ টাকা থেকে ৪,৯০০ টাকার মধ্যে রয়েছে। করোনা মহামারীর সময় গোটা দেশ জুড়ে আর্থিক মন্দা দেখা দিচ্ছে যথেষ্ট। ছোলার ডালের সাথে সাথে দাম কমেছে অড়হর ডাল এবং মুগ ডালেরও। চেন্নাইয়ের এক ব্যবসায়ী বলেছেন, “দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর জন্যই দাম কমেছে ছোলার ডালের”। তবে যে কারণেই হোক না কেন, ডালের দাম কিছুটা পরিমাণ কমাতে মধ্যবিত্তের মুখে হাসি ফুটেছে। কারণ, ডাল হলো এমন একটি পদ যা প্রত্যেকের বাড়িতেই রোজ হয়ে থাকে।