প্রতিশোধ নিচ্ছে প্রকৃতি, ধীরে ধীরে পৃথিবীর বুক থেকে মুছে যাচ্ছে ৩ হাজার বছর পুরানো এই শহর

ইতালির বুকে প্রায় ৩ হাজার বছরের পুরনো সভ্যতার ইতিহাসের সাক্ষী হিসেবে দাঁড়িয়ে রয়েছে সিভিটা শহরটি। তবে এত পুরাতন একটি শহর আজ প্রায় ধবংসের দোরগোড়ায় পৌঁছে গিয়েছে। অনবরত ভূমিক্ষয়, ভূমিধস, ভূমিকম্পের মুখে পড়ে এই শহর ক্রমাগত ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে চলেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে এই ক্ষয়প্রাপ্ত শহরের বাসিন্দারা তাই শহরটিকে বাঁচিয়ে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছেন।

সিভিটা শহরের পরিস্থিতি দেখে এই শহরের নামকরণ করা হয়েছে “ডাইং টাউন”। অর্থাৎ যে শহর প্রতিনিয়ত একটু একটু করে মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। এখানকার বাসিন্দারা জানেন তাদের এই শহর ছেড়ে চলে যেতে হবে। তবে শহরের মায়া পরিত্যাগ করতে পারছেন না তারা। শহরের বাসিন্দারা তাই ইউনেস্কোর কাছে আবেদন জানিয়েছেন, ইউনেস্কোর পদক্ষেপে যেন শহরে তাদের বাড়িগুলিকে রক্ষা করা হয়।

ঘনঘন ভূমিধস এবং ভূমিকম্পের কারণে এই শহরের সঙ্গে অন্য প্রদেশের যোগাযোগের রাস্তা একরকম বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এমন প্রতিকূল পরিস্থিতির শিকার হয়ে এই শহরের বাসিন্দারা অনেকেই শহর পরিত্যাগ করে অন্য জায়গায় চলে গিয়েছেন। এখন এই ক্ষয়প্রাপ্ত শহরের মধ্যে টিকে রয়েছে কয়েকটি লেন, কিছু বাড়ি, গির্জা এবং একটি চৌরাস্তা।

শহরের বাসিন্দাদের মুখে শোনা যায় রোমান আমলে এটারাসকানসের হাতে তৈরি হয়েছিল এই শহর। প্রাচীন সেই যুগ, মধ্য যুগ পেরিয়ে আজ আধুনিক যুগে প্রবেশ করেছে সিভিটা। বিগত প্রায় ৩০০০ বছর ধরে সভ্যতার উত্থান পতনের সাক্ষী হয়েছে সে। আজ এই শহর যেন তার জীবনের শেষ নিশ্বাস ফেলছে।