বেলাইন অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে দ্বিতীয় আর্থিক প্যাকেজ ঢেলে সাজাচ্ছে মোদি, শীঘ্রই ঘোষণা করবে সরকার

এমনিতেই দেশের যা অবস্থা তাতে দ্বিতীয় আর্থিক প্যাকেজ ঘোষনা কতটা সমীচীন তা নিয়ে সন্দেহ ছিল। কিন্তু অবশেষে শনিবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভার বৈঠকের পর অবশেষে দ্বিতীয় দফার আর্থিক প্যাকেজ ঘো,নার প্রস্তুতি সেরে ফেলল ভার। এমনটাই জানাল ভারতের মুখ্য অর্থনীতি উপদেষ্টা। দেশের মানুষের আর্থিক অবস্থা একেবারেই শোচনীয়। লকডাউন পরিস্থিতিতে খানিকটা নিয়মের বাইরে গিয়েই সরকার ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষনা করেছে।

কিন্তু যেহেতু দু দুবার করে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে তাতে এবার দ্বিতীয় দফায় আর্থিক প্যাকেজ ঘোষনার চেষ্টা করছে ভারত সরকার। তাই তো দ্বিতীয় আর্থিক প্যাকেজের জন্য শনিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক সারলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী। বেশ কয়েক দফায় বৈঠক হয় বলেই সূত্রের খবর। যদিও এদিনের বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী ছাড়াও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সভার বেশ কয়েকজন মন্ত্রী উপস্থিত ছিলেন।

অর্থনৈতিক উপদেষ্টা কৃষ্ণমূর্তি ভি সুব্রমনিয়ন এপ্রসঙ্গে বলতে গিয়ে জানিয়েছেন “দ্বিতীয় আর্থিক প্যাকেজ খুব শীঘ্রই প্রত্যাশিত। এবং সেটারই কাজ চলছে। সরকার সব সেক্টরকেই পরিকল্পিতভাবে এর আওতায় আনতে চাইছে যাতে সীমিত ক্ষমতাকেই পুরোপুরি ব্যবহার করা যায়। তবে প্রাথমিক লক্ষ্য থাকবে গ্রামীণ অর্থনীতি, অসংগঠিত ক্ষেত্র এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প এবং সেইসব বড় শিল্পক্ষেত্র যা সরাসরি মানুষের জীবনে প্রভাব ফেলে। আমরা চায় মানুষের টাকা যাতে সঠিক এবং পরিকল্পিতভাবে খরচ হয়, তা নিশ্চিত করতে।”

এমনিতেই বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলি এই পরিস্থিতিতে নিজেদের জিডিপির বড় অংশকে আর্থিক প্যাকেজ হিসেবে ঘোষনা করেছে। তাই তাদের থেকে কিছুটা কম হলেও দ্বিতীয় পর্যায়ে আর্থিক প্যাকেজ ঘোষনা করতে বদ্ধপরিকর দেশের সরকার, এমনটাই বলছেন অর্থনৈতিক মুখ্য উপদেষ্টা। শনিবার মোদী দফায় দফায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক সারেন তিনি।