ভ্যা’ক’সিন প্রসঙ্গে মমতাকে জবাব মোদির, ২২ লক্ষ টিকা এখনো জমা আছে বাংলায়

একুশের বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে ভোটের প্রচার চালাতে ভাঙা পা নিয়েই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে তৃণমূলের তরফ থেকে আয়োজিত জনসভায় অংশ গ্রহণ করছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবারের পর বুধবারেও বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রামসহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে ঘুরে বিজেপির বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী প্রচার চালাচ্ছেন। বিজেপির বিরুদ্ধে প্রচার চালাতে গিয়ে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অন্যতম হাতিয়ার হয়ে উঠেছে করোনার টিকা।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্রমাগত প্রচার চালাচ্ছেন, তৃণমূল সরকার রাজ্যের প্রত্যেক বাসিন্দাকেই করোনা‌ প্রতিরোধী টিকা দিতে ইচ্ছুক। তবে মোদি সরকার রাজ্যে করোনা ভাইরাসের টিকা পাঠাচ্ছে না। তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টিকা প্রদানের পরিকল্পনা ব্যাহত হচ্ছে। তবে মমতা সরকারের এই প্রচারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়।

রাজ্যে মোদি বিরোধী এই প্রচারের খবর কেন্দ্রে পৌঁছতেই এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জবাব দিলো কেন্দ্র। কেন্দ্রের তরফ থেকে এ পর্যন্ত রাজ্যে কি পরিমান করোনার টিকা পৌঁছেছে তার খতিয়ান তুলে ধরা হয়েছে। কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয়েছে ১৭ই মার্চ সকাল আটটা পর্যন্ত ৫২.৯০ লক্ষ করোনার টিকা পাঠানো হয়েছে রাজ্যে। এর মধ্যে কেবল ৩০.৮৯ লক্ষ টিকা ব্যবহার করতে পেরেছে রাজ্য।

কেন্দ্রের তরফ থেকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ২২.০১ লক্ষ করোনার টিকা এখনো পর্যন্ত ব্যবহারই করতে পারেনি রাজ্য। এভাবেই কার্যত করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মমতা সরকারের অভিযোগ কার্যত খারিজ করে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়।