ক’রোনায় বিদ্ধ মন্ত্রী শুভেন্দু ও তার বৃদ্ধা মা, চিন্তিত অধিকারী পরিবার

এবার রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী আক্রান্ত হয়ে গেলেন করোনায়। তিনি একাই না তার সাথে তার বৃদ্ধা মা-ও আক্রান্ত হয়ে গেলেন, যেটা নিয়েই অনেকটাই উদ্বগের মধ্যে তাদের পরিবার। তিনি লকডাউন চলাকালীন বাড়ির মধ্যেই ছিলেন। তেমন একটা দেখা যায় নি মন্ত্রী সভার বিভিন্ন বৈঠকে। কিন্তু তিনি নিজের জেলা ছাড়া আরও ৫ জেলায় বিভিন্ন খাদ্য রসদ নিয়ে পৌছে গেছে মানুষের সাহায্যের জন্য। আর তার পরেই দেখা যাচ্ছে করোনায় আক্রান্ত হয়ে গেলেন তিনি। আসলে গতকাল বৃহস্পতিবার তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে, সাথে আছে তার বয়স্কা মা-ও।

গতকাল রাতেই তার মাকে বভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে, আজ হয়ত শুভেন্দু অধিকারী ভর্তি হতে পারেন হাসপাতালে। আসলে সূত্রের মাধ্যেমে জানা যাচ্ছে, তার ছিল না কোনো ধরনের উপসর্গ, কিন্তু তাও তিনি পরীক্ষা করিয়েছেন, আর রিপোর্ট আসতেই অবাক। তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার একটি কর্মসূচীর জন্য হলদিয়ায় গিয়েছিলেন, কিন্তু গতকালই তার রিপোর্ট পজিটিভ আসায় অনেকটাই অবাক হন তিনি। এর পরে আর বেশী দেরি করেন নি তিনি।

তিনি সাথে সাথেই কোলাঘাটের গেস্ট হাউসে এসে নিজেকে আইসোলেট করেন। এদিকে তার সাথে তার বৃদ্ধা মায়ের রিপোর্ট পজিটিভ আসাতে , আরও অনেকটাই ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পরেন তারা। কারণ মায়ের কয়েকদিন আগেই হয়েছিল এক অস্ত্রপ্রচার। এর মধ্যেই আবার করোনা। তাই আর বেশী দেরি না করে মাকে ভর্তি করেন গায়েত্রী দেবী নামে এক সরকারী হাসপাতালে। এর আগে অবশ্য শুভেন্দু অধিকারীর ভাইপো ও দাদা করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, তাদের কোনো ধরনের উপসর্গ না থাকা সত্ত্বেও তাদের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। কিন্তু তারা কয়েকদিনের মধ্যেই সুস্থ হয়ে যান, এখন তারা কলকাতার বাড়িতে ফিরে গেছেন। কিন্তু এর মধ্যে আবার অধিকার পরিবারের ২ জন আক্রান্ত করোনায়, যেটা নিয়ে চিন্তার মধ্যে সবাই।