সদস্য মাত্র ৫, ২৭ তলা বাড়ি, পরিচারকের সংখ্যা ৬০০, জানুন এই অট্টালিকার ইতিহাস

এশিয়ার বিখ্যাত ধনী ব্যক্তি হলেন মুকেশ আম্বানি। আম্বানি তার স্ত্রী এবং তিন সন্তানের বসবাসের জন্য বানিয়েছে 27 তলা বিশিষ্ট একটি বাড়ি। চারজনের বসবাসের মতো এত বড় বাড়ি এই মুকেশ আম্বানির ছাড়া আর কোথাও নেই। এই বাড়িটি বানাতে তার খরচা হয়েছিল 100 কোটি পাউন্ড।

পরিচর্যার জন্য রেখেছেন 600 টি কাজের লোক। বাড়িটি মধ্যে আছে 50 টি আসন বিশিষ্ট থিয়েটার। বিলাসবসানের জন্য রেখেছেন বহুতলবিশিষ্ট বাগান এবং বিস্ময়কর জলের ফিচার। এই বাড়ীটির প্রধান বৈশিষ্ট হল প্রতিটি তলার সিলিং এক একটি এক একদিকে বের করে দেওয়া। এছাড়াও বাড়িটিতে নয়টি লিফট আছে।

অতিথি পরিষেবার জন্য রয়েছে গ্রান্ড বলরুম, ঝুলন্ত সুইমিং পুল। বাড়িতে 6 তলা পর্যন্ত গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা আছে। এক একটি তলায় 160 টি করে গাড়ি রাখা যেতে পারে। এই বাড়িটিতে যে পরিমাণ প্রযুক্তিগত সম্পদ রয়েছে তার থেকে একটি ভবনে আরো বেশি সংখ্যক প্রযুক্তিগত সম্পদ থাকে। ভবন কি হল বাকিংহাম প্যালেস।

বৃটেনের এই রাজপরিবারের বাড়ি হল রাজকীয় জমির উপর তৈরি। মুকেশ আম্বানির বাড়ির মালিক তিনি নিজেই। মুকেশ আম্বানি নিজের চলাচলের জন্য ব্যবহার করেন এয়ারবাস জেট। তিনি রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রির চেয়ারম্যান হওয়ার পর ভারতের সবথেকে ধনী খেতাবটি যেতে। এছাড়াও তিনি ইন্ডিয়ার প্রিমিয়ার লিগের একাংশের মালিক। তার নিজের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আছে।

জুলাই মাসে পাওয়া খবর অনুযায়ী তার সম্পত্তির পরিমাণ ৪৫০০ কোটি ডলার বা ৩৪০০ কোটি পাউন্ড। নিউ ইয়র্ক টাইমসে লেখক জ্ঞান প্রকাশ লিখেছেন এই বাড়ির গেটটি হল আকাশ ছোঁওয়া। ধনী ব্যক্তিরা কিভাবে শহর থেকে কিভাবে দূরে মুখ রাখতে চান সেই ভাবমূর্তি ফুটে উঠেছে এই বাড়িতে।