শৌচকর্মের প’রেও অনেকেই হাত ধু’তে চা’ন না! জানুন ভারতের অ’ব’স্থা’ন ক’তো নম্বরে

মহামারীর পর্যায়ে হাত ভালো করে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা যে কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা সাধারণ মানুষকে বুঝিয়েছেন চিকিৎসকেরা। প্রতিমুহূর্তে হাত ধোয়া, হাত পরিষ্কার রাখার উপর জোর দেওয়া হয়েছে সংক্রমণ এড়াতে। তবে জানেন কি এখনো পৃথিবীর বহু মানুষের মধ্যে হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা সম্ভব হয়নি? এই সংখ্যাটা কিন্তু নেহাত কম নয়। আবার শৌচকর্মের পর হাত ধোন না, এমন মানুষের সংখ্যাও নেহাত কিছু কম নয়।

সম্প্রতি সারাবিশ্বের ৬৩টি দেশকে নিয়ে একটি সমীক্ষা চালানো হয়েছিল। কোন দেশের মানুষের হাত ধোয়ার অভ্যাস কেমন তা জানার জন্যই কার্যত এই সমীক্ষা চালানো হয়েছিল। সমীক্ষার রিপোর্টে যে তথ্য উঠে এসেছে, তা অত্যন্ত ভয়াবহ। হাত না ধোয়া এবং হাত পরিষ্কার না রাখার নিরিখে আমাদের দেশ ভারত বর্ষ উঠে এসেছে ১০ নম্বর স্থানে!

এই তালিকায় প্রথম স্থানেই রয়েছে চীন। দেখা যাচ্ছে চীনের বহু মানুষ অন্যান্য সময় হাত ধোওয়া তো দূরের কথা, শৌচকর্ম করেও হাত ধোননা! ওই সমীক্ষা থেকে জানা গেছে ভারতবর্ষে সাবান বা ডিটারজেন্ট দিয়ে ৫৬ শতাংশ এবং জল দিয়ে ৪২.১ শতাংশ মানুষ হাত পরিষ্কার করে থাকেন। দেশের ৩৫.৮ শতাংশ মানুষ খাবার খেতে যাবার আগেই কেবল ডিটারজেন্ট কিংবা বাজে সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করেন। ৬০.০৪ শতাংশ মানুষ শুধু খাবার আগেই হাত পরিষ্কার করেন।

গ্রামের ২৫.৩ শতাংশ মানুষ সাবান বা ডিটারজেন্ট ও ৬৯.৯ শতাংশ মানুষ শুধুমাত্র জল দিয়ে হাত ধুয়ে থাকেন বলে তবে এদের মধ্যে বেশিরভাগই শৌচকর্ম এরপর হাত ধোয়ার প্রয়োজনীয়তা বোধ করেন না বলেই উল্লেখ করা হয়েছে ওই রিপোর্টে। ভারত ছাড়াও চীন, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, নেদারল্যান্ডসের মানুষের উপর চালানো হয়েছে এই সমীক্ষা। সমীক্ষার রিপোর্ট দেখে তাজ্জব দুনিয়া।