দীঘার সমুদ্রে ব্যা’প’ক জলোচ্ছ্বাস, পাশাপাশি প্র’ব’ল বৃষ্টিতে বহু এ’লা’কা জলমগ্ন

মঙ্গলবার সকাল থেকেই দীঘার সমুদ্র সৈকতে চলছে প্রবল বৃষ্টিপাত। যে কারণে মৎস্যজীবীদের গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। দীঘার পাশাপাশি পূর্ব মেদিনীপুরের এগরা ও কাঁথির বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে জলমগ্ন হয়ে রয়েছে এলাকা। ঝাড়গ্রামের বিভিন্ন এলাকাও জলমগ্ন হয়ে রয়েছে। টানা বৃষ্টিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হয়েছে। এদিকে সমুদ্রের জল এতটাই উত্তাল হয়ে উঠেছে যে গার্ডওয়াল টপকে জল ঢুকে যাচ্ছে।

নিম্নচাপের জেরে সারা রাজ্য জুড়ে প্রবল বৃষ্টিপাত হয়েছে। একইসঙ্গে বয়ে যাচ্ছে ঝোড়ো হওয়া। দিঘার সমুদ্রের প্রবল জলোচ্ছাস চলছে। এদিকে আবার মন্দারমনি এবং শংকরপুরের অবস্থাও একই। এই সময়ে যারা দীঘার সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে গিয়েছিলেন তারা কার্যত হোটেলের মধ্যে বন্দি হয়ে গিয়েছেন। প্রশাসনের তরফ থেকে তাদের হোটেলের মধ্যে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে উপকূলবর্তী এলাকায় বহু বাড়িতে জল ঢুকে গিয়েছে। প্রবল বৃষ্টির দরুন রাজ্যজুড়ে চরম সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। জল নিকাশি ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ব্যাহত। গ্রামাঞ্চলে পুকুরের জল ছাপিয়ে রাস্তা ভেসে গিয়েছে। গ্রামাঞ্চলের বহু বাড়িতে জল ঢুকে গিয়েছে। রাজ্যের মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরি জানিয়েছেন, পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে প্রশাসন। জল ঠেকাতে ব্ল্যাক স্টোন প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

ঝাড়গ্রামের সাঁকরাইলে রাস্তার উপর দিয়ে বইছে কেলেঘাই নদীর জল। ডুলুং, সুবর্ণরেখা নদীর জলস্তর বেড়ে যাওয়ায় ঝাড়গ্রামের বিস্তীর্ণ এলাকা আপাতত জলের তলায়। এদিকে চাষের জমি জলমগ্ন হওয়াতে কৃষকেরা চোখে অন্ধকার দেখছেন। রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে গতকাল রাত থেকেই প্রবল বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে।