করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্রের কাছে দেড় হাজার কোটি টাকা দাবি মমতার

ইতিমধ্যেই দেশ জুড়ে জারি হয়েছে লকডাউন। গতকাল প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে স্পষ্ট জানান যে, মঙ্গলবার রাত ১২টার পর থেকে আগামী ২১ দিন টানা থাকবে লকডাউন। তাই গোটা দেশের স্বাস্থ্য খাতে প্রধানমন্ত্রী ১৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে এবং তিনি বলেছেন প্রতিটি রাজ্য স্তরের খাতেই পৌঁছে যাবে এই টাকা।

এদিন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নব্বানে একটি বৈঠকের পর জানান, “কেন্দ্র মাত্র ১৫ হাজার কোটি টাকা এই করোনা মোকাবিলার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য খাতে ব্যবহার করবে কিন্ত আমাদের রাজ্যে এরম সর্বনিম্ন অনেক মানুষ রয়েছে যাদের দিনগুজরান হয়না, তাদের দৈনিক ইনকাম অনেক কম। তাই অনেক খাতই আমাদের যথেষ্ট প্রয়োজন। সেই সূত্রে আমরা কেন্দ্রের কাছে আরো ১৫০০ কোটি টাকা চাইছি এখন দেখার বিষয় তারা কতটা রাজ্য কে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়।

রাজ্যের পুলিশ ও প্রশাসনের উদ্দেশ্যে তিনি অনেক নির্দেশিকাই জারি করেছেন। অনেকে অভিযোগ করেছিলেন যে, লক ডাউন পরিস্থিতিতে বাইরে কোনো দরকারে বেরোলেও যথেষ্ট হেনস্থা করছে পুলিশ। এদিন এই প্রসঙ্গে স্পষ্ট বললেন তিনি, “জরুরি পরিষেবা এবং নিতান্তই দরকারি কোনো কাজের সূত্রে বাইরে গেলে পুলিশ বাঁধা দিতে পারবে না। এছাড়াও সব্জি ব্যবসায়ীদের আটকানো যাবেনা এবং কৃষকদের এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে কোনোভাবেই চাষ করা থেকে আটকানো যাবেনা”।