নেতাজির নামে ‘‌জয় হিন্দ’‌ বিশ্ববিদ্যালয় তৈরির ঘোষণা মমতার, কৃতী পড়ুয়াদের উপহার দিলেন ল্যাপটপ

সোমবার নবান্নে একটি ভার্চুয়াল বৈঠকের আয়োজন করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চলতি বছরের মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক, মাদ্রাসা, জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ডের পরীক্ষাসহ বিভিন্ন বোর্ড পরীক্ষায় কৃতী ছাত্রছাত্রীদের সংবর্ধনা জানালেন। পাশাপাশি ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। নবান্নের তরফ থেকে প্রত্যেক কৃতী পড়ুয়াকে এদিন উপহার স্বরুপ ল্যাপটপ, হাতঘড়ি, মানপত্র, পুস্তক, মিষ্টি, ফুল, নোটবুক ও পেন প্রদান করা হয়।

এদিনের বৈঠকে শিক্ষাক্ষেত্রে রাজ্যের তরফ থেকে গৃহীত একাধিক প্রকল্পের কথা উল্লেখ করেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, শীঘ্রই রাজ্যে বাবাসাহেব আম্বেদকর এবং নেতাজির নামে ‘‌জয় হিন্দ’‌ নামক একটি বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তুলতে চান তিনি। তিনি আরো জানিয়েছেন,আর্থিকভাবে দুর্বল জেনারেল কাস্টের ছেলে মেয়েরা যাতে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারেন সেজন্য রাজ্যের তরফ থেকে স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিনস স্কলার্শিপ চালু করা হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী বাংলার পড়ুয়াদের আশ্বাস প্রদান করে বলেছেন, বাংলায় কখনোই কর্মসংস্থানের অভাব হবে না। মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেছেন, পরবর্তী ক্ষেত্রে পড়ুয়ারা মুখ্যমন্ত্রীর স্বাক্ষরসহ একটি করে ডায়েরি পাবেন। পাশাপাশি, বই, অথবা অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণজিনিসের জন্য যেকোনো পুরো আর পড়াশোনা বন্ধ না হয়ে যায় সেদিকে নজর রাখার জন্য প্রত্যেক জেলা শাসককে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। পড়ুয়াদের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, বই বা টাকার অভাবে ভর্তি হতে না পারলে পড়ুয়ারা যেন সরাসরি জেলাশাসককে নিজেদের সমস্যা জানিয়ে চিঠি পাঠান।

এরপর জেলাশাসক সরাসরি শিক্ষা সচিব মণীশ জৈনের সঙ্গে যোগাযোগ করে সত্বর ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশের মধ্যে পড়ার জন্য রাজ্যের তরফ থেকে পড়ুয়াদের সফট লোনে অর্থাৎ কম সুদে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত লোন প্রদান করা হয়। আবার বিদেশে পড়তে যাওয়ার জন্য পড়ুয়ারা ২০ লক্ষ টাকা অব্দি লোনের সুবিধা পান।