ফের উত্তপ্ত উপত্যকা, কাশ্মীরে জঙ্গির গুলিতে গুরুতর আহত ভারতীয় সেনার মেজর

সীমান্তে ভারতীয় সেনাদের সাথে জঙ্গীদের সংঘাত এখনো অব্যাহত। শুক্রবার সকাল থেকেই জম্মু-কাশ্মীরের বারামুল্লা জেলার ইয়েদিপোরার পাট্টান এলাকায় সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষ শুরু হয়েছে। ভারতীয় সেনাবাহিনী সূত্রে খবর, উভয়পক্ষের গুলির লড়াইয়ে এ পর্যন্ত ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক মেজর আহত হয়েছেন। আহত মেজরকে নিকটস্থ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিগত বেশ কয়েকদিন যাবৎ, উপত্যকা অঞ্চল জঙ্গিমুক্ত করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এগোচ্ছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। সেইমতো গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, এদিন জঙ্গি বাহিনী খোঁজে ওই এলাকায় তল্লাশি চালায় জম্মু–কাশ্মীর পুলিশ, সেনার ২৯ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস এবং সিআরপিএফ–এর যৌথবাহিনী। যৌথবাহিনী জঙ্গি ঘাঁটির কাছাকাছি পৌঁছাতেই, নিরাপত্তারক্ষীদের লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গীরা।

জঙ্গিদের গুলিতে ঘটনাস্থলেই আহত হন ওই মেজর। এরপর জঙ্গিদের সাথে পাল্টা গুলির লড়াইয়ে নেমে পড়ে ভারতীয় যৌথবাহিনী। এদিন কাশ্মীর পুলিশ জোনের তরফ থেকে একটি টুইট বার্তায় এই সংঘর্ষের কথা জানানো হয়েছে। উপত্যকা অঞ্চলে সেনা এবং জঙ্গী বাহিনীর মধ্যে গুলির লড়াই এখনো অব্দি চলছে বলে খবর পাওয়া গেছে। জম্বু-কাশ্মীরের পুলিশ সূত্রে খবর, গোটা এলাকা নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলেছে ভারতীয় যৌথবাহিনী।

এদিকে বুধবার সকালে, পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর সংঘর্ষবিরতি লংঘন করে সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনীর উপর আক্রমণ চালায়। যার ফলে রাজৌরি জেলায় এক সেনা জওয়ান শহীদ হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। মৃত শহীদের নাম রাজেশ কুমার। শুধু তাই নয়, জঙ্গিদমন অভিযান চালিয়ে বীরওয়া বুদগামের পেঠকোট এলাকা থেকে চার লস্কর-ই-তৈবা জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।