Gixxer 250 ও Gixxer SF 250-র ই’ঞ্জি’নে বড়োসড়ো যা’ন্ত্রি’ক ত্রু’টি, বা’ই’ক ফেরত চাইলো Suzuki

অনেক বাইকাররা অভিযোগ করে থাকেন সুজুকির নাকি আফটার সেলস সার্ভিস একদমই ভালো নয়। দেশের নানা জায়গায় ছড়িয়ে থাকা নানা মানুষ সুজুকি বাইকের সার্ভিস সেন্টার গুলো থেকে সার্ভিস করিয়ে একদমই সন্তুষ্ট নয়। সুজুকির স সুনামে এবার আরেকটু চাপ লেগে গেল। সুজুকির স্পোর্টস বাইক জিক্সার টু ফিফটি ও জিক্সার এস এফ টুফিফটির বেশ কতগুলি ইউনিটে নানা ধরনের গোলমাল ধরা পড়েছে। যার কারণে সংস্থা এর মধ্যে প্রায় দুইশত ইউনিট রিকল করেছে। যে সকল বাইকের ইঞ্জিনের সমস্যার রয়েছে সেগুলি বিনামূল্যে সারিয়ে গ্রাহকদের ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

সুজুকি ইতিমধ্যে সেই সকল গ্রাহকদের ফোন করে তার বাইক গুলি ফেরত চেয়ে পাঠিয়েছেন যাদের বাইকে সমস্যা দেখা গিয়েছে। সেই সকল বাইক গুলিতে কয়েকটি সমস্যা দেখা দিয়েছে। যেমন কয়েকটি বাইকের ইউনিটের ইঞ্জিনে অতিরিক্ত ভাইব্রেশনের সমস্যা দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে ১৯৯ ইউনিট সুজুকি ফেরত নিয়েছে। সেগুলি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সারিয়ে আবার গ্রাহকদের হাতে নতুন করে ফেরত দেয়া হবে। এই সূত্রে জানা গিয়েছে ১২ ই আগস্ট ২০১৯ থেকে ২১ শে মার্চ ২০২১ পর্যন্ত তৈরি নানা বাইকের ইঞ্জিনের অতিরিক্ত ভাইব্রেশনের সমস্যার নানা বার দেখা গিয়েছে।

আসলে দেখা গিয়েছে সেই ইউনিট গুলির ইঞ্জিনের বল রেসার সফট প্রসেসিং একদমই ঠিক নেই। তাই এই ধরনের ভাইব্রেশন হচ্ছে। সোসাইটি অফ ইন্ডিয়া অটোমোবাইল ম্যানুফ্যাকচারার অ্যাসোসিয়েশনের ভলেন্টিয়ার্স ইনফর্মেশন পেজে এই ব্যাপারে আরও অনেক তথ্য সমগ্র তুলে ধরেছেন। সুপারভাইজার ব্যালেন্স ড্রাইভ গিয়ারে জন্য টেমপ্লেট মার্কিং ম্যাচ করেনি। যার কারণে ব্যালেন্সার ড্রাইভ গিয়ার ইঞ্জিনে অত্যাধিক পরিমাণে ভাইব্রেশন অর্থাৎ কম্পন সৃষ্টি হয়েছিল।

সুজুকি জিক্সার এস এফ টুফিফটির প্রিমিয়াম সেগমেন্টের মোটরসাইকেল। সেই মডেল কোন রকমের খামতি রাখছে কিনা নজর দিচ্ছে সুজুকি। ২৪৯ সিসি ইঞ্জিনে ২৬ বিএইচপি পাওয়ার ও ২২.২ এন এন টর্ক রয়েছে। সিক্স স্পিড গিয়ার বক্স ও আছে। এদেশে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে সুজুকি জিক্সার সুজুকি জিক্সার এস এফ ২৫০।