ভালোবেসে আলিঙ্গন প্রেমিক-প্রেমিকার, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার দুজনকেই, ভাইরাল ভিডিও

নিজের পছন্দের মানুষের প্রতি প্রেম নিবেদন কখনোই অপরাধ হিসেবে গণ্য হতে পারে না। তবে তথাকথিত আধুনিক এই সভ্য সমাজেও রোমিও-জুলিয়েটের আখ্যান বারবার ফিরে ফিরে আসে। প্রেমের জন্য তাদের প্রাণ দিতে হয়েছিল। আজকে যে ঘটনাটি আপনাদের সামনে তুলে ধরছি তাতে অবশ্য প্রেমিক-প্রেমিকা যুগলকে প্রাণ দিতে না হলেও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কৃত হতে হয়েছে।

প্রেম প্রকাশের মাশুল স্বরুপ শিক্ষা গ্রহণের অধিকার থেকেই বঞ্চিত হলেন দুই তরুন-তরুনী। এমন অনভিপ্রেত ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে চিহ্নিত লাহোর বিশ্ববিদ্যালয়ে! ঘটনাটির সূত্রপাত হয় যখন পাকিস্তানের লাহোর বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠরতা এক তরুণী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে তার পছন্দের তরুণকে প্রেম নিবেদন করে বসেন।

রীতিমতো হাঁটু গেড়ে বসে প্রকাশ্যেই ওই তরুণকে প্রেম প্রস্তাব দেন তরুণী। সেই প্রস্তাব স্বীকার করে নেন ওই তরুণ। এরপর তারা একে অপরকে আলিঙ্গন করেন। প্রেমিক যুগলের এমন মিষ্টি-মধুর মুহূর্তটি ক্যামেরাবন্দি হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। বলা বাহুল্য, নেটিজেনরা ভিডিওটি বেশ পছন্দ করেছিলেন।

কিন্তু এরপরেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে। গত শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বিশেষ শাখার তরফ থেকে এই বিষয়ে বৈঠক ডাকা হয় এবং ওই তরুণ-তরুণীকে বৈঠকে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। তবে তারা সেদিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম ভঙ্গের কারণ দর্শিয়ে তাদের দু’জনকেই বহিস্কার করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এমন মনোভাবের বিরোধিতা করছেন নেটিজেনরা।