মুরগি দিয়ে সিংহকে টোপ, হচ্ছিলো বেআইনি কাজ, কঠোর শাস্তি পেলো অভিযুক্তরা

গুজরাটের গির অরণ্য, যে অরণ্যে বনের রাজার বাস। সেই রাজাকে ঘিরেই গড়ে উঠেছিল এক জঘন্য ব্যবসা। বনের সিংহকে জঙ্গলের বাইরে পর্যটকদের মাঝে এনে ফেলা হতো! তাকে টোপ দেখিয়ে বাইরে বের করে এনে পর্যটকদের দেখানো হতো। এই বেআইনি কার্যকলাপের জেরে সম্প্রতি সাজা ঘোষণা করলো গিরগদড়ার আদালত। অভিযুক্তদের চিহ্নিত করে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ঘটনার সূত্রপাত ২০১৮ সালের মে মাসে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল একটি ভিডিও। যে ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছিল গির জাতীয় উদ্যানের বাইরে একটি সিংহ ঘোরাফেরা করছে। তাকে ঘিরে দাঁড়িয়ে রয়েছেন অগুনতি দর্শক। এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই গুজরাট সরকার স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে একটি মামলা দায়ের করে।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত প্রধান অভিযুক্ত ইলিয়াস অ্যাড্রমন ২০১৮ সালের ১৯শে মে রাত ১.১০ মিনিট নাগাদ গ্রেফতার করা হয়। উল্লেখ্য, ঐ ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছিল এই ব্যক্তিই সামনে থেকে পর্যটকদের সিংহ দেখাচ্ছিলেন। তার এক কর্মচারী আবার সিংহটির সামনে একটি মুরগিকে টোপ হিসেবে ব্যবহার করছিল।

তেমন গুরুতর অপরাধের শাস্তি স্বরূপ ঐতিহাসিক রায় দিয়েছে গিরদড়ার আদালত। অভিযুক্তদের প্রত্যেককের জন্য দশ হাজার টাকার জরিমানা ধার্য করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রধান অভিযুক্তদের তিন বছরের কারাদণ্ড ধার্য করা হয়েছে। একজন অভিযুক্তকে বেকসুর খালাস করে দেওয়া হয়েছে এবং অপরজনকে এক বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। পাশাপাশি অভিযুক্তরা যে জমি দখল করে এই বেআইনী কাজ চালাচ্ছিল সেই জমির পারমিশনও রদ করেছে আদালত।