দুর্গাপুজোর মতো কালীপুজো-জগদ্ধাত্রী পুজোতেও কি মণ্ডপে NO ENTRY?

করোনা অতি মারীর আবহে নিতান্ত প্রায় সাধারণভাবেই এ রাজ্যে বাঙালির সর্ব শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজো সম্পন্ন হয়েছে। পুজোর শুরুটি প্রাকমুহুর্তেই কলকাতা হাইকোর্টের তরফ থেকে নিষেধাজ্ঞা জারি করে পুজোমণ্ডপে দর্শনার্থীর প্রবেশ নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়। যার ফলে চলতি বছরের দুর্গোৎসব কিছুটা হলেও নিরানন্দভাবেই কেটেছে।

শরৎকাল মানেই উৎসবের মুহুর্ত শুরু। দুর্গাপুজো, লক্ষ্মী পূজার ঠিক পরেই জগদ্ধাত্রী পুজো, কালীপুজো উৎসবে মেতে উঠবে বাঙালি। কালীপুজো অথবা দীপাবলি উৎসব আলোর উৎসব। ঐদিন ঘরে ঘরে আলোর রোশনাইয়ের পাশাপাশি উৎসব প্রেমীদের মাঝে শব্দ-বাজি ফাটানোর চল আছে। কিন্তু শব্দ-বাজি মানেই পরিবেশ দূষণ। পরিবেশের পাশাপাশি এর প্রকোপ মানব শরীরের উপরেও পড়ে।

তাই কালি পুজোতে যাতে বাজি পটকা ফাটানোর উপরেও আদালতে তরফ থেকে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়, এমন একটি আবেদন নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন এক আইনজীবী। অজয় দে নামক জনৈক ব্যক্তির আবেদনের ভিত্তিতে বিশিষ্ট আইনজীবী অনুসূয়া ভট্টাচার্য কলকাতা হাইকোর্টের কাছে পিটিশন দাখিল করেছেন।

আগামী ৫ই নভেম্বর কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় এজলাসে এই মামলার শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে। উল্লেখ্য, এর আগে আদালতে আবেদনের ভিত্তিতে করোনা অতিমারীর আবহে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে দুর্গাপূজা উৎসব পালনের ক্ষেত্রে হাইকোর্টের তরফ থেকে একাধিক বিধি নিষেধ লাগু করা হয়েছিল। এবার কালীপূজা সম্পর্কিত এই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাই কোর্ট কি সিদ্ধান্ত নেয়, তা জানতে উদগ্রীব রাজ্যবাসী।