একদম সাধারণ ঘরের মেয়ে, ছত্রিশগড়ে মাওবাদী হামলার মূলচক্রী, জানুন সুজাতার কাহিনী

একের পর এক অস্ত্র নিয়ে ছত্রিশগড়ের বিজাপুরে হামলা চালিয়েছে প্রায় 700 জন মাওবাদী। এখনো পর্যন্ত শহীদ হয়েছেন 22 জন জয়ান। আগে থেকেই আন্দাজ করা হয়েছিল যে, নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হামলা হতে পারে। কিন্তু এইভাবে চারিদিক দিয়ে যেভাবে মাওবাদী হামলা চালিয়েছেন, তাতে করে বোঝা যাচ্ছে আগে থেকেই তারা হামলা নিয়ে পরিকল্পনা করে রেখেছিলেন।

তবে এক্ষেত্রে মাস্টারমাইন্ড হিসেবে উঠে এসেছে সুজাতা নামে এক মাওবাদী মহিলার। 34 বছর বয়সী সুজাতা বিজাপুরের সংগঠনের মূল দায়িত্বে রয়েছেন। ইতিমধ্যে তার মাথার দাম ধার্য করা হয়েছে প্রায় ৮ লক্ষ টাকা। এর আগেও তাকে গ্রেফতার করেছিল বিজাপুর পুলিশ। কিন্তু তখন পুলিশের হাত থেকে পালিয়ে গিয়েছিল সে।

দক্ষিণ ভারতের দণ্ডকারণ্যের দায়িত্ব ছিল সুজাতা। ধীরে ধীরে সমস্ত অঞ্চল এর নেতৃত্ব দিতে শুরু করে সে। এর আগেও বিজাপুরের একাধিক হামলার দায়িত্ব ছিল সুজাতা। তার স্বামী ও একজন মাওবাদী নেতা। শনিবার বিজাপুর জেলায় যৌথ তল্লাশি চালিয়েছিল সিআরপিফের কোবরা ব্যাটেলিয়ান, ডিসটিক রিজার্ভ গার্ড এবং স্পেশাল টাস্কফোর্স। অভিযান চলাকালীন জঙ্গলের ভেতর থেকে হঠাৎ করে আক্রমণ চালায় মাওবাদীরা।

নিরাপত্তা আধিকারিকদের মত অনুযায়ী, সুজাতা এবং তার দলবল হাতের তালুর মতো চেনে গোটা বিজাপুর এলাকাকে। নিরাপত্তা বাহিনীকে ঘিরে ফেলার চক্রান্ত তাই সহজেই করতে পেরেছিলেন তারা। জুনাগর আর ওই এলাকায় মাওবাদী দলের পান্ডারা রয়েছে, এই খবর পাওয়ার পরেই শুক্রবার গভীর রাতে সেখানে হামলা চালিয়েছিল সিআরপিএফ, এসটিএফ এবং পুলিশের যৌথ বাহিনী। জয়ানরা আগে থেকে আন্দাজ করতে পারেন নি বলে এইভাবে প্রাণ হারাতে হলো তাদের।