১৪ই সেপ্টেম্বর থেকে চালু কলকাতা মেট্রো, যাত্রীদের যেসব নিয়ম মানতেই হবে, দেখে নিন

করোনা মহামারীর সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার হাত থেকে রক্ষা পেতে বিগত পাঁচ মাস ধরে রাজ্যে মেট্রো পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর, আগামী ১৪ই সেপ্টেম্বর থেকে রাজ্যে আবারো মেট্রো পরিষেবা চালু হতে চলেছে। বুধবার, কলকাতা মেট্রোর তরফ থেকে প্রকাশিত একটি নির্দেশিকায়, যাত্রীদের উদ্দেশ্যে মেট্রোর সময় সারণি, এবং মেট্রো পরিষেবা পেতে অবশ্য পালনীয় বিধি নিষেধ সম্পর্কে জানানো হলো।

মেট্রো কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে প্রকাশিত নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত মেট্রো চলাচল করবে। তবে কনটেইনমেন্ট জোন গুলিকে মেট্রো পরিষেবার আওতার বাইরে রাখা হয়েছে। মেট্রোর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, যাত্রাপথে কনটেইনমেন্ট জোনের যে স্টেশনগুলি পড়বে, সেই স্টেশনে মেট্রোর গেট খোলা হবে না। পাশাপাশি, এবার থেকে মেট্রোয় যাত্রা করতে গেলে স্মার্ট কার্ড ব্যবহার করতে হবে। কোনোরকম পেপার টিকিট বা টোকেন দেওয়া হবে না।

উল্লেখ্য গত সোমবার থেকেই দিল্লি সহ দেশের অন্যান্য রাজের মেট্রো পরিষেবা চালু করে দেওয়া হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে আগামী সোমবার থেকে মেট্রো চলাচল করবে। মেট্রো স্টেশন গুলিতে এই মুহূর্তে প্রস্তুতি তুঙ্গে। তবে মেট্রো পরিষেবা পেতে গেলে যাত্রীদের বেশ কিছু বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে। যেমন, প্রত্যেক যাত্রীর মুখে মাস্ক থাকা বাধ্যতামূলক। স্টেশনে কোনোভাবেই ভীড় সৃষ্টি করা যাবে না। ট্রেন ধরার ক্ষেত্রে তাড়াহুড়ো করা যাবে না।

পাশাপাশি, স্টেশন চত্বরে থুতু ফেললে তা দণ্ডনীয় অপরাধ’ হিসেবে বিবেচিত হবে। প্রবীণ নাগরিক এবং শিশুদের মেট্রোয় ভ্রমণ না করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। যাত্রীদের শরীরে যদি জ্বর, সর্দি-কাশি মতো লক্ষণ থাকে তাহলে তাকে মেট্রোয় চড়া থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মেট্রো স্টেশনে প্রবেশের সময় রেলকর্মীরা প্রত্যেক যাত্রীর শরীরের তাপমাত্রা চেক করবেন, তাদের সাথে সহায়তা করতে হবে। এসকেলটরের হ্যান্ডরেল, দেওয়াল ইত্যাদিতে হাত দেওয়া যাবেনা। যাত্রীদের প্রয়োজনমতো হাত স্যানিটাইজ করার জন্য স্টেশনে স্যানিটাইজার ডিসপেন্সার রাখা হবে। প্রত্যেক যাত্রীর মোবাইল ফোনে “আরোগ্য সেতু” অ্যাপ থাকা বাধ্যতামূলক।