করোনাকে সঙ্গী করেই বাঁচব, লকডাউন তোলার সপক্ষে বার্তা কেজরিওয়ালের

দেশের মধ্যে অত্যন্ত বিপজ্জনক শহরের তালিকায় নাম উঠেছে রাজধানী শহর দিল্লীর। যেখানকার মোট ১১টি জেলাই রেডজোন।  রেড জোনের সংজ্ঞা বদলানোর জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে আবেদন করেছিলেন দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। কোনো একটি জায়গায় একটা করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া মানেই কিন্তু সেই জায়গা রেড জোন নয়, এমন বলতে শোনা গিয়েছিল। কিন্তু কার কথা শোনে কে। তবে দিল্লী থেকে লকডাউন তুলতে একপ্রকার মরিয়া দিল্লী সরকার।

তাই তো রবিবার এক সাংবাদিক বৈঠক থেকে দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী একগুচ্ছ ছাড়ের তালিকা প্রকাশ করেন। আর সেখানেই কোন কোন বিষয়ের ওপরে কতটা ছাড় দেওয়া হবে সেব্যাপারেও তালিকা প্রকাশ হয়েছে। আর সেই বৈঠক থেকেই সরাসরি স্পষ্ট্য ভাবে কেজরিওয়াল জানিয়ে দিলেন, “সময় এসেছে দিল্লিকে খোলার। আমরা সংক্রমণকে সঙ্গী করেই স্বাভাবিক জীবনে ফিরব।” প্রসঙ্গত, দিল্লীতে এখনও অবধি মৃতের সংখ্যা ৬৪ জন। আক্রান্ত রয়েছেন ৪১২২ জন, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২৫৬ জন। তাই এই অবস্থায় মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েদিয়েছেন কনটেইমেন্ট জোন ছাড়া সমস্ত এলকায় নিয়ম শিথীল করা হবে।

প্রসঙ্গত, ৩ মে তারিখ থেকে তৃতীয় দফায় লকডাউন চলছে। আর এই পরিস্থিতিতে বেশ কয়েকটি নিয়ম শিথিল করা হয়েছে। ঘোষনা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এমনিতেই দিল্লীর ১২২ জন জওয়ানের শরীরে পাওয়া গেছে সংক্রমন। তার পর থেকেই আরও কঠোর হয়েছে নিয়ম। কিন্তু লকডাউন তুলে নিতে সদা প্রস্তুত দিল্লী সরকার। একটি টুইট করে নীতি আয়োগের তরফে জানানো হয়েছে, ‘‘নীতি ভবনে কর্মরত এক কর্মী কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছেন। সকাল ৯টায় কর্তৃপক্ষকে একথা জানানো হয়। নীতি আয়োগ স্বাস্থ্য মন্ত্রকের গাইডলাইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় প্রোটোকল অনুসরণ করবে। ভবনটি সিল করে দেওয়া হয়েছে।