জম্মুর ড্রোন হা’ম’লা’য় প্রত্যক্ষদর্শী ২ জওয়ানকে ত’ল’ব, উ’ঠে এ’লো চাঞ্চল্যকর ত’থ্য

উপত্যকা অঞ্চলে জঙ্গি হামলা অব্যাহত। রবিবার জম্মুর ভারতীয় বিমান বাহিনীর ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা চালিয়েছে দুষ্কৃতীরা। জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা অর্থাৎ এনআইএ ইতিমধ্যেই সেই হামলার তদন্ত শুরু করেছে। তদন্ত চলাকালীন ইতিমধ্যেই ২ জওয়ানের বয়ানও রেকর্ড করা হয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে। জওয়ানেরা জানিয়েছেন, রবিবার রাতের অন্ধকারে যখন ড্রোন জম্মুর বিমান ঘাঁটিতে প্রবেশ করে তখন তারাই প্রথম সেটিকে লক্ষ্য করেন।

যে দুইজনের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে, সেই দুই জওয়ানের এক জন বিমান বাহিনীর ও অন্যজন প্রতিরক্ষা সুরক্ষা কর্পসের অধীনে কর্মরত। তারা জানাচ্ছেন এদিন রাতে তারাই প্রথম ওই ড্রোনটিকে দেখতে পান। রবিবার রাতে দুজনেই কর্মরত ছিলেন ওই এলাকায়। ড্রোনটিকে দেখে তাদের অত্যন্ত সাধারণ বলেই মনে হয়েছিল। তবে ড্রোনগুলি বিমানঘাঁটিতে প্রবেশের মাত্র ৩০ সেকেন্ডের মধ্যেই বিস্ফোরণ ঘটে যায় বলে জানিয়েছেন তারা।

রবিবার রাত ১টা ৩৫ মিনিট নাগাদ ঘটেছে এই দুর্ঘটনা। ওই দুজনের মধ্যে একজন ঐদিন রাতে ওয়াচ টাওয়ারের ডিএসসি সেন্ড্রিকে গার্ডের দায়িত্বে ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। তিনি তদন্তকারী অফিসারদের জানিয়েছেন ড্রোনটি কোন দিক দিয়ে এসেছিল। বিমান বাহিনীর এয়ার ট্র্যাফিক কন্ট্রোলে কর্মরত জওয়ান জানিয়েছেন যে, তিনি ড্রোনের আওয়াজ শুনেছিলেন।

তিনি জানাচ্ছেন একেবারেই সাধারণ ড্রোনের মতো দেখতে ছিল হামলাকারীদের ড্রোন। বিয়েবাড়ির ছবি বা ভিডিও রেকর্ডিংএর সময় ব্যবহার করা হয় সেজাতীয় ড্রোনের মতই দেখতে ওই ড্রোন ব্যবহার করেই ভারতীয় সেনা ঘাঁটির উপর বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। জম্মুতে হামলার ঘটনার পরেই সারা দেশের বিমান ঘাঁটিগুলিকে এ বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে।