ঘর ছাড়াদের বাড়ি ফেরাতে এসে দু’ষ্কৃ’তী হা’ম’লা’য় জ’খ’ম জলপাইগুড়ির বিজেপি সাংসদ

ভোট-পরবর্তী হিংসার দরুন বিজেপি কর্মীরা ঘরছাড়া হয়েছিলেন। সেই ঘরছাড়া কর্মীদের ঘরে ফেরাতে গিয়ে এই হামলার সম্মুখীন হতে হলো বিজেপি নেতা কর্মীদের। শুক্রবার ঘরছাড়া কর্মীদের ঘরে ফেরাতে গিয়েছিলেন জলপাইগুড়ির বিজেপি নেতৃত্বের জয়ন্ত রায় এবং তার দলের সদস্যরা। তবে সেই চেষ্টা করতে গিয়েই জলপাইগুড়ির বিজেপি সাংসদ জয়ন্ত রায়-‌সহ দলের অন্যান্য কর্মী-‌সমর্থকদের বাঁশ দিয়ে বেধড়ক পেটানো হলো।

এই ঘটনার দরুন জখম হয়েছেন ওই বিজেপি সাংসদ। তার দুই কর্মী সদস্যেরও মাথা ফেটেছে। জয়ন্ত রায় ও আহত বিজেপি কর্মীদের উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। শরীরের বেশ কিছু জায়গায় আঘাত পেয়েছেন ওই সাংসদ। তাকে আপাতত পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে অভিযোগের আঙুল উঠছে তৃণমূলের দিকে।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে অভিযোগ জানিয়েছে বিজেপি। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে রয়েছে এলাকা। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকেলের দিকে, জলপাইগুড়ির আমবাড়ি এলাকায়। ভোটের ফল প্রকাশের পর অশান্তির জেরে রাজগঞ্জ ব্লকের ১৩ টি বিজেপি কর্মীর পরিবার ঘর ছাড়া হওয়ার খবর মেলে। দুষ্কৃতীদের আক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে আমবাড়ি ফাড়ির অধীনস্ত হরেকৃষ্ণ মন্দিরে আশ্রয় নিয়েছিলেন তারা।

তাদেরকে ফিরিয়ে আনার জন্য শুক্রবার বিকেলে জয়ন্ত রায় তার দলবল নিয়ে মন্দিরে উপস্থিত হন। তবে গ্রামের ঢোকামাত্রই একদল দুষ্কৃতী বাঁশ, লাঠি নিয়ে তাদের তাড়া করে বলে অভিযোগ। বিজেপির অভিযোগ আক্রমণকারীদের মধ্যে সকলেই ছিলেন তৃণমূলের কর্মী সমর্থক। তারা চিৎকার করে বলতে থাকে, এই এলাকায় বিজেপি করা যাবে না! তারপরেই তাদের এলোপাথাড়িভাবে মারতে থাকে ওই দুষ্কৃতীরা। এমনটাই জানিয়েছেন ওই সাংসদ।