কো’ভি’ড নি’য়’ন্ত্র’ণে সফল ইজরায়েল, উল্টোপথে হেঁ’টে মা’স্ক পরার নিয়মে ছাড়

গোটা বিশ্ব যখন করোনা নিয়ে আরো একবার উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছে, বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে যখন নতুন করে করোনার নতুন স্ট্রেন থাবা বসাচ্ছে, বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলি যখন ফের লকডাউন, কারফিউ, ১৪৪ ধারা জারি করার পরিকল্পনা করছে তখন ইসরায়েলের চিত্রটা কিন্তু একেবারে আলাদা ভাবে ধরা পড়ছে। ইজরায়েল খুব সুন্দরভাবে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়েছে যার ফলে সে দেশে করোনার প্রভাব অনেকখানি কমে গিয়েছে।

পরিস্থিতি এমনই যে ইজরায়েলের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে সেই দেশের বাসিন্দারা এবার থেকে মাস্ক না পড়েই বাইরে বেরোতে পারবেন! শুধু তাই নয় ইজরায়েলের সমস্ত স্কুল-কলেজ খুলে গিয়েছে। করোনার রুখতে ফাইজারের টিকার উপর ছাড়পত্র দিয়েছিল ইজরায়েলের প্রশাসন। এরপর সেই রাষ্ট্রের ৯.৩ মিলিয়ন জনসংখ্যার ৫৪ শতাংশ মানুষকে ফাইজারের দুটি টিকা দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

কড়া নিয়মের বাধ্যবাধকতায় সেই দেশের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃত্যুর সংখ্যা অনেকখানি কমে গিয়েছে। যার ফলে সেই রাষ্ট্রের বাসিন্দারা এবার থেকে মাস্ক না পরেই বাইরে বেরোতে পারবেন। ইসরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের ডিজি প্রফেসর হেজি লেভি জানিয়েছেন, ১৮ই এপ্রিল থেকে খোলা জায়গায় মাস্ক ব্যবহারের নিয়মটি আপাতত তুলে নেওয়া হচ্ছে।

পাশাপাশি কিন্ডারগার্টেনস, এলিমেন্টারি এবং হাইস্কুলও খুলে গিয়েছে সেই রাষ্ট্রে। পড়ুয়ারাও নিয়মিতভাবে স্কুলে আসছেন। মিডল স্কুলের পড়ুয়ারা এতদিন বাড়ি থেকে পড়াশোনা করলেও, করোনা পরবর্তী সময়ে সেগুলিও এখন খুলে দেওয়া হয়েছে। করোনা আতঙ্ক কাটিয়ে ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরে আসছে ইজরায়েল।