রাতের বে’লা কি ‘ন’গ্ন’ হয়ে ঘুমানো বে’শি উপকারী? কি বলছে গবেষকরা?

বিশেষজ্ঞরা বলেন, সুস্বাস্থ্যের জন্য দিনে অন্তত ছয় থেকে আট ঘণ্টার ঘুম ভীষণ জরুরি। তবে শুধু ঘুমোনোর পাশাপাশি কিভাবে ঘুমোবেন সেই দিকে প্রথমে নজর দেওয়া ভীষণ জরুরি।

আর রাতে ঘুমনোর সময় বেশির ভাগ মানুষই পরিচ্ছন্ন ও আরামদায়ক পোশাক পরে শোয়, কারণ এভাবে শুলেই নাকি তাড়াতাড়ি ঘুম আসবে এরকমই ধারণা থাকে অনেকের।

তবে এতকিছু মানার পরেও অনেকেরই অনিদ্রার সমস্যা পিছন ছাড়ে না। তাই রাতে দ্রুত ঘুমানোর জন্য পোশাক না পরে শোয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এতে ঘুমের সমস্যা তো মিটবেই, পাশাপাশি রাতে ন’গ্ন হয় ঘুমোলে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হওয়া যায়।

ন’গ্ন হয়ে ঘুমানোর সুবিধা :

১) বয়স কমাতে এবং ত্বকের জেল্লা বাড়াতে কত কিছুই তো করেন। এক বার এই পন্থাও মেনে চলতে পারেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে জামাকাপড় ছাড়া ঘুমানো খুব ভালো। এমনকি এই উপায়ে বয়স ঠেকিয়ে রাখাও সম্ভব হয়।

আরো পড়ুন: যোগী রাজ্যের মাদ্রাসাগুলিতে সরকারি অনুদান ব’ন্ধ করে দেওয়া হ’লো

২) বিজ্ঞানীরা আরও বলছেন, ন’গ্ন হয়ে ঘুমোলে মানসিক চাপ ও উদ্বেগ কমে। কারণ এতে রক্তে অক্সিটোসিনের মাত্রা বৃদ্ধি পায় এবং সেই সাথে রক্তচাপও নিয়ন্ত্রিত হয়।

৩) রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে এ এক অনবদ্য উপায়। ন’গ্ন অবস্থায় ঘুমোলে ঘুম গভীর হয়। আর তার ফলে রক্তে কর্টিসলের মাত্রা বাড়ে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

৪) ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি, ঘুমের সময়ে অন্তর্বাস না পরাই শ্রেয়। মেয়েরা জামা-কাপড় না পরে ন’গ্ন অবস্থায় ঘুমোলে তাঁদের যৌনাঙ্গে সংক্রমণের সম্ভাবনা কমে যায়।

আরো পড়ুন: দেশবাসীর কথা মাথায় রেখে ব’ড়ো সিদ্ধান্ত নি’তে চলেছে টাটা গ্রুপ, জেনে নিন

৫) ছেলেদের ক্ষেত্রেও যৌন ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে এই পন্থার জুরি মেলা ভার। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে, আঁটসাঁট অন্তর্বাস পরলে গোপনাঙ্গের চারপাশে তাপমাত্রা বেড়ে যায় এবং তার জেরে শুক্রাণুর সংখ্যাও কমে যায়। তাই ন’গ্ন হয়ে ঘুমনোই ভালো এবং সুস্থ যৌনজীবনের প্রধান চাবিকাঠি।