মৃত্যুর পরেও ফিরে এসেছেন ইরফান খান, ছেলের উদ্যোগে বড়ো পর্দায় মুক্তি পাবে তাঁর শেষ ছবি

চলতি বছরে আমরা হারিয়েছি বহু অভিনেতা কে। প্রিয় মানুষ, প্রিয় অভিনেতা দের চোখের নিমেষে হারিয়ে যেতে দেখেছি। শেষ শ্রদ্ধাটুকু জানানো যায়নি তাদের।চলতি বছরের এপ্রিল মাসে আমাদের সকলকে হারিয়ে চলে গিয়েছিলেন বলিউডের অন্যতম খ্যাতনামা অভিনেতা ইরফান খান। বহুদিন ধরে তিনি আক্রান্ত ছিলেন মারণ রোগ ক্যান্সেরে।

কিন্তু শারীরিক অসুবিধা থাকা সত্ত্বেও তিনি একের পর এক সিনেমা করে গেছেন। যতটুকু সময় পেয়েছেন ততটুকু নিজেকে উজাড় করে দিয়েছেন সিনেমা জগতের জন্য। আস্তে আস্তে কিছুটা শারীরিক উন্নতি হয়েছিল তার। কিন্তু এভাবে যে তাকে চলে যেতে হবে তা হয়তো স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি কেউ।

তার চলে যাওয়া ভীষণ ভাবে আঘাত করেছিল তার ভক্তদের।কিন্তু ইরফানের ভক্তদের কাছে এবার এলো নতুন খবর। আরো একবার চোখের সামনেই নিজের প্রিয় অভিনেতা কে জীবন্ত দেখতে পাবেন তারা। বড় পর্দায় অভিনয় করা মানেই তো জীবন্ত দেখা, তাই নয় কি। মৃত্যুর পরেও এইভাবে সকলের কাছে ফিরে আসা যায় তা হয়তো এই টেকনোলজির দ্বারাই সম্ভব।

চলে যাবার প্রায় এক বছর পর আসতে চলেছে ইরফান খানের শেষ অভিনীত সিনেমা, দা সং অফ দা স্কোরপিয়াস। এই প্রসঙ্গে প্রয়াত অভিনেতা র স্ত্রী সুতপা সিকদার বলেছেন, এ সিনেমাতে জয়সালমের মাটির অনেক গান এবং রূপকথা রয়েছে। এ সিনেমাটি করার সময় ইরফান মাঝে মাঝেই ইমোশনাল হয়ে পড়তো। সিনেমাটির সঙ্গে তার একটি আত্মিক সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। এমনকি তাকে মাঝে মাঝে উটদের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যেত।

মাঝে মাঝে তারাদের সাথে কথা বলত সে, হয়তো চলে যাবার আগে নিজের জায়গা পাকাপাকিভাবে সেখানে করে নিতে চাইত সে। ভারতে মুক্তির আগে এ সিনেমাটি দেখানো হয়েছে লোকার্নো ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে। এই ছবিটি দেখানোর পর ধীরে ধীরে এটি ইরফানের জীবনের একটি অংশ হয়ে উঠেছিল। ইরফান খানের এই সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন অনুপ সিং। সিনেমাটি প্রথম প্রদর্শিত হয়েছিল লোকার্নো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে। ইরফানের ছেলে বাবিল ছবিটির একটি পোস্ট শেয়ার করে লিখেছেন, আরো একবার তবে শেষ বারের জন্য নয়।