ব্যাপক উত্তেজনা সীমান্তে, মুখোমুখি ভারত-চিনের ট্যাঙ্কবাহিনী

ফাইল ছবি

পূর্ব লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনার মাত্রা বাড়িয়েই চলেছে চীন। এর আগে শনিবার রাতে ভারতীয় ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি। তবে ঐদিন, ভারতীয় সেনাবাহিনীর তৎপরতায় তাদের পরিকল্পনা ব্যাহত হয়। গতকাল রাতে পুনরায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় অবস্থিত ভারতের অধীনস্থ চুমার এলাকাতে অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা করে তারা। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর উদ্যোগে আবারো বিফলে গেল চীনের প্রচেষ্টা।

সীমান্ত সূত্রে খবর, এই মুহূর্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর উভয় রাষ্ট্রের সেনাবাহিনীই একে অপরের দিকে বন্দুক উঁচিয়ে আছে। দুপক্ষই দু’পক্ষের যুদ্ধ ট্যাংকের ঠিক সামনে অবস্থান করছে। সেনাবাহিনী সূত্রে খবর, গতকাল রাতে চীনা সেনাবাহিনীর ক্যাম্প থেকে বেশ কয়েকটি আর্মড ভেহিকল বের হতে দেখা যায়। ফলে আবারও চীনারা অনুপ্রবেশ করতে পারে এই আশঙ্কায় নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর সেনার সংখ্যা বাড়িয়ে দেয় ভারত।

শুধু তাই নয়, সীমান্তবর্তী চুশুল এলাকাতেও  টি-৯০ যুদ্ধট্যাঙ্ক মোতায়েন করে ভারত। ভারতীয় সেনাবাহিনী তৎপরতা দেখে শেষমেষ নীদ এ পরিকল্পনার ত্যাগ করতে বাধ্য হয় চিনা লাল ফৌজ। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই মুহূর্তে উভয় রাষ্ট্রই পরস্পর পরস্পরের দিকে যুদ্ধ ট্যাংক মোতায়েন করে রেখেছে। এদিকে সীমান্ত পরিস্থিতি বিচার করে, আজ ভারতীয় প্রতিরক্ষা দপ্তরের তরফ থেকে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে।

এই বৈঠকের নেতৃত্ব দেবেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। ভারতীয় সেনারা জানিয়েছেন,প্যাঙ্গং রেঞ্জের সবুজ উপত্যকা বা গ্রিন টপে টহল দিচ্ছে চীনা সৈন্যবাহিনী। বর্তমানে তাদের নজর পরেছে প্যাংগং হ্রদের দক্ষিণ প্রান্তে অবস্থিত “কালা টপ” নামক উঁচু পাহাড়ি এলাকাটিতে। তবে চীনের গতিবিধি আঁচ করে আগেভাগেই “কালা টপ” নিজেদের নিয়ন্ত্রণাধীনে এনেছে ভারত।