ভারত-চিন সীমান্তে চরম উত্তেজনা, লাদাখে ফের ভারতীয় জওয়ান শহীদ

গত ২৯-৩০শে আগস্টের রাতে পূর্ব লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা করেছিল চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির প্রায় ৫০০ জন সদস্য। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর তৎপরতায়, দ্রুত তাদের সেই পরিকল্পনা বানচাল করে দেওয়া সম্ভব হয়। তবে উভয় পক্ষের ধস্তাধস্তিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক জওয়ান শহীদ হয়েছেন বলে জানিয়েছে সীমান্তরক্ষী বাহিনী। শুধু তাই নয়, অপর এক জওয়ান গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, শহীদ ভারতীয় জওয়ান স্পেশাল ফ্রন্টিয়ার ফোর্স-এর সদস্য ছিলেন। পাশাপাশি তিনি তিব্বতের বাসিন্দা বলেও জানা গেছে। তবে সেনা মৃত্যুর ঘটনা এখনো প্রকাশ্যে আনেনি ভারতীয় সেনাবাহিনী। সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, তিব্বতের সংসদের নির্বাসিত সদস্য নামগাল ডোলকার আনুষ্ঠানিকভাবে ওই জওয়ানের শহীদ হওয়ার ঘটনা স্বীকার করে নেন। পাশাপাশি, তিনি অপর এক জওয়ানের আহত হওয়ার খবর প্রকাশ করেন।

তবে, ২৯-৩০শে আগস্টের রাতেই শুধু নয়, তার পরেও ক্রমান্বয়ে ৩১ তারিখ এবং ১লা সেপ্টেম্বরের রাতেও প্যাঙ্গং হ্রদ এর দক্ষিণ প্রান্ত দিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা করে চীন। তবে প্রতিবারই তাদের উদ্দেশ্য ব্যাহত করে দিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। সীমান্তে, চীনা সেনাবাহিনীর উপর সম্পূর্ণ নজর রাখছে ভারত। তাদের প্রতিটি পদক্ষেপ সম্বন্ধে আগেভাগেই নিশ্চিত হয়ে পরবর্তী স্ট্র্যাটেজি নির্মাণ করছে ভারত।

উল্লেখ্য গত ৫ই জুন রাতে চীনা সেনার আক্রমণে ভারতের কুড়ি জন সেনা জওয়ান যুদ্ধক্ষেত্রে প্রাণ হারান। ভারতীয় সেনাবাহিনী সূত্রে খবর, এই ঘটনায় চীনেরও কমপক্ষে ৩৫জন সৈনিক নিহত হন। তবে বেজিং প্রশাসনের তরফ থেকে এই তথ্য মেনে নেওয়া হয়নি। এদিকে, সীমান্ত উত্তেজনা প্রশমনে উভয় রাষ্ট্রের মধ্যে দফায় দফায় আলোচনা চলছে। তবুও নিজেদের অবস্থান থেকে অনড় চীন।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন