চীনের পেটে লাথি, ফ্রিজ-এসি আমদানি বন্ধ করলো ভারত

লাদাখ সীমান্তে ভারত-চীন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় চিনা আগ্রাসনকে কেন্দ্র করে চীনের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে ভারত সরকার। চীনা অ্যাপ বাতিল করা থেকে শুরু করে, চীনা পণ্য বয়কট, কোনো কিছুই বাদ রাখা হচ্ছে না। ভারতের এই সিদ্ধান্ত চীনা অর্থনীতির উপর জোর ধাক্কা আনবে বলেই মত প্রকাশ করছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। এবার চীনা পণ্য বয়কটছর ক্ষেত্রে আরও এক ধাপ এগোলো ভারত সরকার।

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে প্রকাশিত একটি নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, এবার চীন থেকে ফ্রিজসহ এয়ার কন্ডিশনার আমদানি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্পের আওতায় এবার থেকে দেশীয় প্রযুক্তিতেই এই দুটি পণ্য ভারতেই উৎপাদন করা হতে চলেছে। তবে বিজ্ঞপ্তিতে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে, শুধুমাত্র ফ্রিজসহ এয়ারকন্ডিশনারের ক্ষেত্রেই এই নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য।

অর্থাৎ, স্প্লিট পদ্ধতি বা অন্যান্য চীনা কোম্পানির এয়ার কন্ডিশনারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হচ্ছে না। উল্লেখ্য, চীন থেকে ভারতে যে এয়ার কন্ডিশনার আমদানি করা হয় তার মধ্যে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রেফ্রিজারেটরের বন্দোবস্ত থাকে। সেই সমস্ত রেফ্রিজারেটরের উপরেই নিষেধাজ্ঞা জারি করছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় সূত্রে খবর, চলতি অর্থবর্ষে ভারত চীনের থেকে ৪৬.৯ কোটি ডলারের এবং থাইল্যান্ডের কাছ থেকে ২৪.১ কোটি ডলারের ফ্রিজসহ এয়ারকন্ডিশনার আমদানি করেছে। ভারতের এই সিদ্ধান্তের ফলে চীনের অর্থনীতি যে আবারো ক্ষতিগ্রস্ত হবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।