শত বিতর্কের মধ্যেও উত্তরপ্রদেশে পাশ “লাভ জেহাদ” বিল, এবার বিয়ের জন্য “ধর্মান্তরিত” হলেই শাস্তি

উত্তরপ্রদেশের বিধানসভায় আজ ধ্বনিভোটে পাস হয়ে গেল লাভ জেহাদ বিল। বিরোধীদের বিরোধিতা সত্ত্বেও এই বিলটি পাস করিয়ে নিল যোগীর প্রশাসন। বিল হয়ে যাওয়াতে শীঘ্রই বিনা বাধায় নতুন করে লাভ জিহাদ আইন আসতে চলেছে উত্তরপ্রদেশে। নতুন আইন অনুসারে, উত্তরপ্রদেশে এবার থেকে বিয়ের জন্য কোনও মহিলার ধর্মান্তকরণ করা হলে তা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ বলে গণ্য হবে এবং বাতিল হয়ে যাবে।

প্রসঙ্গত, লাভ জিহাদ প্রসঙ্গে গত বছরের নভেম্বর মাসের ২৮ তারিখে একটি অর্ডিন্যান্স পাশ করেছিল যোগী আদিত্যনাথের সরকার। এতদিনে সেই বিল পাস হলো বিধানসভায়। এই বিলের প্রস্তাব অনুসারে, কোনো মহিলাকে বিয়ের জন্য জোর করে ধর্মান্তরিত করা যাবে না। তেমনটা হলে সেই ধর্মান্তকরণ বাতিল হয়ে যাবে। এছাড়াও বিয়ের পরে ধর্ম বদলাতে চাইলে জেলাশাসকের কাছে আগে আবেদন জানাতে হবে।

প্রতারণা, প্রলোভন দেখিয়ে অথবা জোর করে যদি কোনো মহিলাকে ধর্মান্তকরণ করা হয় তাহলে এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযুক্তদের ২৫ হাজার টাকা জরিমানাসহ ৩ থেকে সর্বাধিক ১০ বছরের সাজা হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এদিকে বিল পাস হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিশিষ্ট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সিটিজেন ফর জাস্টিস অ্যান্ড পিসের তরফ থেকে বিলের বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের।

বিশিষ্ট আইনজীবী তিস্তা সেলভেস্তা এবং বিশাল ঠাকরে এই বিলের উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন। তবে সুপ্রিম কোর্টের তরফে সেই আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। এই আইনটিকে নিয়ে উত্তরপ্রদেশে বহু বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। এই আইনের অপব্যবহার করা হতে পারে বলে মনে করছেন একদল সমাজ বিশেষজ্ঞ। তবে যদি প্রশাসন কোনো বিরুদ্ধ মন্তব্য শুনতে নারাজ।