এভাবেও ফিরে আসা যায়, 38 দিন ধরে করোনার সাথে লড়াই করে বাড়ি ফিরলেন টালিগঞ্জের প্রৌঢ়

নাহ এ বোধহয় মীরাক্কেল। ভেন্টিলেশন থেকে ফিরে এসেছেন একথা ভাবলেই তো যেন চমকে ওঠার অবস্থা। তাও আবার মারণ ভাইরাস করোনা। যার কবলে ভেন্টিলেশন থেকেই অনেকে প্রাণ হারিয়েছেন। কিন্তু টালিগঞ্জের প্রৌঢ়ের বেলায় তেমনটা হল না। টানা ৩৮ দিন ধরে তিনি ভেন্টিলেশনে ছিলেন। তারপর অবশেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন তিনি। এই বিরলতম ঘটনায় কার্যত তাজ্জব বনে গিয়েছেন চিকিত্সকরাও। বিশ্বে রেকর্ড বলেই জানাচ্ছেন তাঁরা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে ২৯ মার্চ তারিখে টালিগঞ্জের ওই প্রৌঢ় হঠাত্ শ্বাসকষ্ট ও জ্বর অনুভব করেন। তারপর তাঁকে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার পর থেকে এককথায় তিনি যমে মানুষে লড়াই করছিলেন। সুস্থ হওয়ার কোনোরকম আশা ছিল না। দেওয়া হয়েছিল ভেন্টিলেশনে। তবে অবশেষে চিকিৎসকদের ট্রাকিওষ্টমী করতে হয়।তারপরেই চিকিত্সায় সারা দিতে শুরু করেন ওই ব্যক্তি। এরপর ভেন্টিলেশন থেকে বের করে জেনারেল বেডে দেওয়া হয়। শুক্রবার বিকেলে তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া হয়।

করোনা আক্রান্তের এভাবে প্রাণ বাঁচানো কার্যত উদাহরণ, এমনটাই বলেছেন হাসপাতাল গ্রুপের সিইও রূপক বড়ুয়া ,অন্যদিকে করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তি চিকিত্সকদের অভিনন্দন জানানোর ভাষা খুঁজে পাচ্ছেন না বলে জানান। প্রসঙ্গত, বিশ্বে প্রতিদিন শয়ে শয়ে মানুষ প্রাণ হারাচ্ছেন করোনায়। এখনও অবধি ৩৯ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। প্রান হারিয়েছেন প্রায় আড়াই লক্ষের বেশি মানুষ। করোনার দাপট রুখতে মরিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন