ফের ছন্দপতন বিনোদন জগতে, প্রয়াত হলেন বিশিষ্ট অভিনেত্রী আশালতা

সম্প্রতি, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন মারাঠি এবং বলিউড ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় অভিনেত্রী আশালতা ওয়াবগাঁওকর। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর। গত সপ্তাহে তার করোনা টেস্ট রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর চিকিৎসার জন্য তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এক সপ্তাহ ধরে চিকিৎসাধীন থাকার পর অবশেষে মঙ্গলবার করোনার কাছে হার মানলেন অভিনেত্রী।

সূত্রের খবর, আশা লতা দেবী ইদানিং সাতারায় “আই কালুবাই” নামক একটি মারাঠি ধারাবাহিকে কাজ করছিলেন। গত সপ্তাহে শুটিং চলাকালীন হঠাৎই অসুস্থ বোধ করতে থাকেন অভিনেত্রী। এরপর চিকিৎসকের পরামর্শমতো তার করোনা টেস্ট করানো হয়। রিপোর্টে করোনা পজিটিভ মেলে। অভিনেত্রী পাশাপাশি শুটিং সেটে কর্মরত কলাকুশলীসহ আরো ২০ জন কর্মীর শরীরে করোনার উপস্থিতি মিলেছে।

উল্লেখ্য, মারাঠা অভিনেত্রী আশা লতা দেবি তার কর্মজীবন শুরু করেছিলেন মারাঠা এবং কোঙ্কনী থিয়েটারের মাধ্যমে। তবে সেখানেই থেমে থাকেননি তিনি, একের পর এক মারাঠা সিনেমা, টিভি-সিরিয়াল, এমনকি বলিউডেরও বহু সিনেমার পর্দায় তার উপস্থিতি সাদরে গ্রহণ করেছিলেন দর্শক। মারাঠি এবং হিন্দি সিনেমা মিলিয়ে প্রায় ১০০টিরও বেশি ছবিতে কাজ করেছেন তিনি।

তার ঝুলিতে যে জনপ্রিয় হিন্দি সিনেমাগুলি রয়েছে সেগুলি হল, “অঙ্কুশ”, “আপনে পরায়ে”, “জঞ্জির”, “শরাবি”, “উও সাত দিন”, “সদমা”, “কুলি”, “নমক হালাল”, “আহিস্তা আহিস্তা”, “শওকিন”। তার অভিনীত যে মারাঠা ছবিগুলি জনপ্রিয় হয়েছিল সেগুলি হল, “বহিনিচি মায়া”, “উম্বার্থা”, “নভরি মিলে নভরইলা”, “সূত্রধর” ইত্যাদি। তার অভিনীত জনপ্রিয় মারাঠি নাটক গুলি হল, “মহানন্দা”, “ভার্যা ভার্চি ভারাত”, “চিন্না” ইত্যাদি। চলচ্চিত্র জগতে তার যাত্রার গল্প নিয়ে তিনি “গর্দ সভোয়াতি” নামক একটি বই প্রকাশিত করেছিলেন।