তৃণমূলের নালিশ কমিশনে, কেনো বুথের ১০০ মিটারের মধ্যে শুধু কেন্দ্রীয় বাহিনী, কেন নেই পুলিশ?

একুশের বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে রাজ্য রাজনীতি জুড়ে এই মুহূর্তে জোর তরজা চলছে। রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নজরে রেখে একুশে রাজ্যে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ ব্যবস্থা নেওয়ার চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন। যে কারণে রাজ্য পুলিশকে ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের ত্রিসীমানায় থাকতে দিতে রাজি নয় কমিশন। কমিশনের তরফ থেকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, একুশের নির্বাচনে ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের ১০০ মিটারের মধ্যে কেবল কেন্দ্রীয় বাহিনীর সদস্যরাই থাকতে পারবেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য শাসকদলের সদস্যরা কমিশনের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। গতকাল নয়াদিল্লিতে কমিশনের শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন তৃণমূলের তরফের সদস্য মহুয়া মৈত্র, সৌগত রায়, ডেরেক ও’ব্রায়েনরা। তাদের দাবি কমিশনের এই সিদ্ধান্তের কারণে রাজ্য পুলিশের মনে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। কারন তারাই বছরভর রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা রক্ষা করেন।

নির্বাচন প্রসঙ্গে কমিশন রাজ্য পুলিশের প্রতি যে দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করছে তা উচিত নয় বলেই দাবি করছে তৃণমূল। তৃণমূলের দাবি, ভোটের কারণে রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সদস্যরা আসতেই পারেন। তবে রাজ্য পুলিশের সঙ্গে তাদের সঠিক সমন্বয় প্রয়োজন। প্রসঙ্গত, রাজ্যের বিরোধী শিবির গুলির তরফ থেকে বারংবার কমিশনের কাছে রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে শাসক দলের হয়ে কাজ করার অভিযোগ জানানো হয়েছে।

বিরোধীদের দাবি, রাজ্যের পুলিশ কর্তারা বরাবর তৃণমূল জেলা সভাপতির মতো আচরণ করছেন। রাজনীতিতে পুলিশের নিরপেক্ষতা নিয়ে বারংবার প্রশ্ন উঠেছে। যে কারণে আসন্ন একুশের নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সদস্যদের উপরেই ভরসা রাখছে কমিশন। যা একেবারেই না পসন্দ তৃণমূলের।