উল্টো চিত্র বাংলাদেশে, ল’ক’ডা’উ’নেও ৪৩ ভি’ক্ষু’ক পে’লে’ন চাকরি

করোনাকালে চাকরি হারিয়েছেন অনেকেই। বিগত প্রায় এক বছরেরও বেশি সময় ধরে করোনার বিরুদ্ধে এই লড়াইয়ে মানুষ স্বাস্থ্য, অর্থনীতি, শিক্ষা, সবদিক দিয়েই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। হাজার হাজার মানুষের চাকরি চলে গিয়েছে। যারা কোনো রকমে নিজেদের চাকরিটি বাঁচিয়েছেন তাদেরও বেতনে কাটছাঁট করা হয়েছে। এমন এক কঠিন সংকটময় মুহুর্তেও কিন্তু দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো বাংলাদেশ।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিশ্বের যে কয়টি রাষ্ট্র সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম হলো বাংলাদেশ। বাংলাদেশের সংক্রমণের হার এবং তার সঙ্গে মৃত্যুর হার পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। লকডাউনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সেই রাষ্ট্রের প্রশাসন। তবে তার মাঝেই বাংলাদেশের ৪৩ জন ভিক্ষুক চাকরি পেলেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মস্থান গোপালগঞ্জ জেলার কোটালিপাড়া উপজেলার একটি প্যাকেজিং ফ্যাক্টরিতে চাকরি পেলেন তারা।

শনিবার গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই ৪৩ জন ভিক্ষুকের হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেন। গত ডিসেম্বর মাস থেকে কোটালিপাড়া উপজেলার কুশলা ইউনিয়নের চৌরখুলী গ্রামে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ও সরকারি উদ্যোগে “অবলম্বন” নামের এই প্যাকেজিং ফ্যাক্টরিটি তৈরির কাজ শুরু হয় যা এপ্রিল মাসে শেষ হয়েছে।

কুশলা ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম বাদল জানালেন, কুশলা ইউনিয়নের চৌরখুলি গ্রামের ৪৩ জন নারী ও পুরুষ ভিক্ষুককে এই ফ্যাক্টরিতে চাকরি প্রদান করে তাদের আর্থিকভাবে সক্ষম করে তোলা হয়েছে। প্রশাসনের এমন উদ্যোগকে স্যালুট জানাচ্ছে নেট দুনিয়া।