কো’ভি’ড আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে মৃ’ত্যু হলে তা ক’রো’না’য় মৃ’ত ধরা হবে: সুপ্রিম কোর্ট

করোনা আক্রান্ত হওয়ার ২-৩ মাসের মধ্যে মৃত্যু হলে মৃত ব্যক্তির মৃত্যুর কারণ হিসেবে করোনাকেই কারণ হিসেবে ধরতে হবে বলে সাফ জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। বুধবার এ সংক্রান্ত একটি মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্টে তরফ থেকে এমন নির্দেশ জারি করা হয়েছে। করোনায় মৃতদের ডেথ সার্টিফিকেট সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারির ক্ষেত্রেও কেন্দ্রের তরফ থেকে বিষয়টিকে অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি যেভাবে করোনায় মৃতদের নথিভুক্ত করে তার বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টের দুটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছিল। আইনজীবী রিপক কনসাল এবং গৌরব কুমার বনশলের দায়ের করা এই মামলাতে শুনানির সময় সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, করোনাই আক্রান্ত ব্যক্তিদের অন্য কোনো কারণে মৃত্যু হতেই পারে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে কেন্দ্র এনং ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চের জারি করা নির্দেশিকায় এ সম্পর্কে কোনো স্পষ্ট উল্লেখ করা নেই।

যার ফলে ডেট সার্টিফিকেট পাওয়ার ক্ষেত্রে করণায় আক্রান্ত হয়ে মৃত ব্যক্তিদের পরিবারকে ভোগান্তি ভোগ করতে হচ্ছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে ডেথ সার্টিফিকেট দেওয়ার ক্ষেত্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্তৃপক্ষকে ‘সরলীকৃত পদ্ধতি বা নির্দেশিকা’ তৈরির নির্দেশ দিয়েছে উচ্চ আদালত। ডেথ সার্টিফিকেটে মৃত্যুর আসল কারণকে ‘কোভিড-১৯-এর কারণে মৃত্যু’ বলেই উল্লেখ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উচ্চ আদালতের স্পষ্ট নির্দেশ, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার দু-তিন মাসের মধ্যে মৃত্যু হলে অবশ্যই করোনার কারণে মৃত্যু বলে উল্লেখ করতে। এছাড়াও অন্য কোন কারণে মৃত্যু হলেও সেটিকে করোনার কারণে মৃত্যু বলেই ধরতে হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। করোনার কারণে যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের পরিবারবর্গের ডেথ সার্টিফিকেট পেতে যাতে কোনো অসুবিধা না হয় সেই কারণেই কার্যত এমন সিদ্ধান্ত কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট ‌।