ঘরে ঘরে খেলবো, চারজন মিলে খেলবো: অনুব্রত

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পূর্বে রাজ্য রাজনীতি স্বভাবতই উত্তাল। এই উত্তাল রাজনীতির পারদ আরো একমাত্রা চড়িয়েছে তৃণমূলের নতুন স্লোগান “খেলা হবে”। “খেলা হবে” স্লোগানে মেতে উঠেছে সারা বাংলা। প্রসঙ্গত, নির্বাচনের পূর্বে দলের হয়ে প্রচার কিংবা বিরোধী শিবিরের বিপক্ষে প্রচার চালানোর উদ্দেশ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলে বিভিন্ন স্লোগানের উৎপত্তি ঘটে।

কবে “খেলা হবে” স্লোগানটি বাংলার আর সব রাজনৈতিক স্লোগানকেই যেন পেছন ফেলে দিয়েছে। রাজ্য শাসক দলের এই শ্লোগান এখন রাজ্যের প্রতিটি প্রান্তেই শোনা যাচ্ছে। এবার শেষ শ্লোগান ফের একবার শোনা গেল বীরভূমে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের মুখে। বীরভূমের বিধানসভা কেন্দ্র গুলির তৃণমূল প্রার্থীদের হয়ে প্রচারে নেমে পড়েছেন অনুব্রত মণ্ডল।

জেলার প্রতিটি প্রান্তে ঘুরে ঘুরে বীরভূমের বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থীদের হয়ে জোর প্রচার চালাচ্ছেন অনুব্রত। বুধবারেও তার অন্যথা হয়নি। গত বুধবার বাঁকুড়ার রানিবাঁধে তৃণমূল প্রার্থী জ্যোৎস্না মান্ডির হয়ে প্রচার চালানোর উদ্দেশ্যে তৃণমূলের তরফ থেকে আয়োজিত একটি জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে ফের “খেলা হবে” স্লোগান তুলে সভা ভরিয়ে তোলেন অনুব্রত মণ্ডল।

এদিন সভার মাঝেই তিনি হুংকার দিয়ে বলেন, “এবার ঘরে ঘরে খেলতে চান তিনি। খেলা হবে। আগের তুলনায় আরো ভয়ঙ্কর খেলা হবে। এই বাংলার মাটিতেই বাংলার ঘরে ঘরে খেলা হবে। পারলে কেউ আটকে দেখাক!” এ দিন প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে মন্তব্য করতে গিয়েও তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী জোচ্চোর! উনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখোমুখি বসার সাহস পান না।”