‘পুজোতে চুড়ি উপহার দেব পুলিশকে’, বেফাঁস মন্তব্য বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রার

রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে আবারও সোচ্চার হলো বিজেপি। দিলীপ ঘোষের পরে এবার পুলিশের কার্যকলাপের উপর প্রশ্ন তুলে কার্যত রাজ্য পুলিশকে একহাত নিলেন বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল। পুলিশের অকর্মণ্যতায় ক্ষুব্ধ বিজেপি নেত্রী রাজ্য পুলিশের প্রতি সম্প্রতি কটাক্ষ করে বলেছেন, এবার পুজোয় রাজ্য পুলিশকে চুড়ি উপহার দিতে চান তিনি। এরপর ২০২১ সালের নির্বাচনে যখন বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় আসবে, তখন পুলিশের হাত থেকে সেই চুড়ি খুলে নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার সন্ধ্যায় শিলিগুড়িতে ভোটের কর্মসূচি পালন করার পর, সোজা জলপাইগুড়ি গিয়ে রাজগঞ্জের নির্যাতিতা নাবালিকার পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন অগ্নিমিত্রা পাল। এদিন বিজেপি নেত্রীকে কাছে পেয়ে সন্যাসীকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের নবগ্রামে স্থানীয় গ্রামবাসীরা তার কাছে নিজেদের একাধিক অভিযোগ জানান। তবে পরিবারের সঙ্গে দেখা হলেও, নির্যাতিতা নাবালিকার সঙ্গে দেখা করতে পারেননি বিজেপি নেত্রী।

হাসপাতালে নির্যাতিতার সঙ্গে দেখা করতে গেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয় ওই দিনেই স্থানীয় একটি হোমে তাকে নিয়ে গেছে পুলিশ। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ বিজেপি নেত্রী, পুলিশের প্রতি লুকোচুরি করার অভিযোগ তুলেছেন। পাশাপাশি পুলিশকে চুরি উপহার দেওয়ার কথাও বলেছেন। পরে অবশ্য শিলিগুড়ি ফিরে যাওয়ার পথে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ এবং স্থানীয় মহিলা থানার পুলিশের সাথে যোগাযোগ করে নির্যাতিতার খোঁজখবর নেন বিজেপি নেত্রী।

উল্লেখ্য, রায়গঞ্জের ট্যাংরা পাড়া গ্রামের বাসিন্দা সোমারু মহম্মদ অভিযোগ করেন, তার মেয়েকে নাকি নয় মাস ধরে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন তিনি, পুলিশ নাকি তার মেয়েকে খুঁজে দেওয়ার জন্য ৮০০০ টাকা ঘুষ চেয়েছে। পরে অবশ্য এই বয়ান বদলে দেয় সোমারু। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পালের অভিযোগ, পুলিশ জোর করে সোমারুকে তার বয়ান বদলাতে বাধ্য করেছে।