খেলার মাল-মশলা আমি পৌঁছে দেবো: ফের বিতর্কিত মন্তব্য মদন মিত্রের, রইলো ভিডিও

আসন্ন একুশের নির্বাচনী লড়াই শিয়রে। রাজ্য রাজনীতি নির্বাচন প্রসঙ্গে উত্তাল। তার উপর আবার বঙ্গ বিজেপি-র আক্রমণে রাজ্য শাসকদলে ভাঙ্গন ধরেছে। তবুও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে আরও একবার শক্ত হাতে বাংলা দখলের লড়াইয়ে নামছে তৃণমূল শিবির। তৃণমূলের তরফ থেকেও জোর প্রচার চালাচ্ছেন দলীয় নেতাকর্মীরা। সেই প্রচার চালাতে গিয়েই রাজনৈতিক মঞ্চে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন তৃণমূল নেতা মদন মিত্র।

আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্য রাজনীতি জুড়ে তৃণমূল, বিজেপি শিবির নির্বিশেষে একটিই স্লোগান ঘোরাফেরা করছে। “খেলা হবে”, এই স্লোগানটিকেই হাতিয়ার করে চ্যালেঞ্জ, পাল্টা চ্যালেঞ্জের বন্যা বয়ে যাচ্ছে রাজ্যে। সেই “খেলা”র জন্য যে “মালমশলা” প্রয়োজন তা ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব নিলেন মদন মিত্র!

পিছাবনী হাইস্কুল সংলগ্ন শহিদ স্মৃতিস্তম্ভ প্রাঙ্গন মাঠে বিজেপির পালটা জনসমাবেশের আয়োজন করেছিল তৃণমূল। সেই মঞ্চে যোগদান করে মদন মিত্রের বিতর্কিত মন্তব্য, ভোটের জন্য যে “মাল” লাগে, সেই মাল তিনি ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে পারবেন। দিনে না পারলেও রাতের অন্ধকারে “মাল” পৌঁছে দিতে পারবেন মদন মিত্র! বলা বাহুল্য, তার এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে স্বভাবতই জোর বিতর্ক শুরু হয়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের নানা জনবিরোধী নীতি এবং পেট্রল, ডিজেল, রান্নার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি, কৃষি আইন বাতিলের দাবি জানিয়ে আজকের জনসমাবেশের আয়োজন করেছিল তৃণমূল। পাশাপাশি তৃণমূলের কর্মীদের প্রতি তার নির্দেশ, এই “খেলা”র জন্য ভালো “খেলোয়াড়” খুঁজে দিতে হবে। সেই খেলোয়াড়কে প্রশিক্ষণ দেবেন মদন মিত্র নিজেই। শিখিয়ে দেবেন কি করে খেলতে হয়!